Hoop ViralHoop Video

Short Film: শিক্ষক-ছাত্রীর ঘনিষ্ঠ রোম্যান্সে মন হবে ফুরফুরে, দরজা খুলে ভুল করেও দেখবেন না

Advertisements

বিনোদনের চাহিদা সবসময়ই থাকে এক রকম। তবে বিশেষ বিশেষ সময়ে মানুষ বিনোদনের খোঁজ করে তুলনামূলক বেশি। সোশ্যাল মিডিয়ার (Short Film) বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মগুলিতে ভাইরাল হচ্ছে নানান ধরণের ভিডিও। উৎসবের মাঝেই সেই সব ভিডিওর জন্য নেট দুনিয়ায় চোখ রাখছেন অনেকেই। অধিকাংশ দর্শকদের গোপন চাহিদা পূরণ করতে যেমন নিত্য নতুন প্ল্যাটফর্ম লঞ্চ হচ্ছে, তেমনি আবার শর্ট ফিল্মের জন্য চালু হচ্ছে নানান ইউটিউব চ্যানেল। শর্ট ফিল্মের একটা বড় সংখ্যক দর্শক ছিল আগে থেকেই। কিন্তু অ্যাডাল্ট শর্ট ফিল্ম নতুন করে টানছে দর্শকদের নজর। ইউটিউবে বহু চ্যানেল রয়েছে যেখানে সর্বক্ষণই কোনো না কোনো শর্ট ফিল্ম ভাইরাল হয়ে চলেছে।

নেট দুনিয়া এমনি এক জগৎ যেখানে সবসময় কিছু না কিছু ঘটেই চলেছে। সারা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে জড়িয়ে রয়েছে এই ভার্চুয়াল জগতের সঙ্গে। তাই বিশ্বের বিভিন্ন কোণার নানান জিনিস সর্বক্ষণই ভাইরাল হচ্ছে নেট মাধ্যমে। এই স্রোতে একবার গা ভাসাতে পারলেই আলাদা করে নজর কাড়ার সুযোগ এসে যায় আপনা থেকেই।

Read More: এক লাখের কম দামে মিলছে এই ৫ টি বাইক, মধ্যবিত্তদের জন্য সেরা বিকল্প

অনেকেই আছেন যারা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায় সর্বক্ষণ সক্রিয় থাকেন। আসলে এটি এক দারুণ বিনোদনের মাধ্যম। নেটপাড়ায় সারাক্ষণই কিছু না কিছু ভিডিও ভাইরাল হতে থাকে। কনটেন্ট ক্রিয়েটররাও এই সুযোগটাকেই কাজে লাগিয়ে ভিডিও বানিয়ে শেয়ার করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। পাশাপাশি আধুনিক বিনোদনও জনপ্রিয়তা পাচ্ছে নেটদুনিয়ার দৌলতে। যার মধ্যে অন্যতম হল শর্ট ফিল্ম।

Read More: বাড়ির পাশেই শুরু করুন এই ব্যবসা, কয়েকমাসে রোজগার হবে লাখ টাকা

সম্প্রতি এমনি একটি হিন্দি শর্ট ফিল্ম বেশ ভাইরাল হয়েছে নেটপাড়ায়, নাম ‘ইংলিশ টিচার’। মাত্র এক মাসের মধ্যেই কয়েক হাজার ভিউ হয়ে গিয়েছে এই হিন্দি শর্ট ফিল্মটি তে। আসলে নেট পাড়ায় বিভিন্ন ভাষার বিভিন্ন ধরণের ভিডিও শেয়ার করা হয়, যেগুলি নেটিজেনদের চোখে পড়া মাত্রই ছড়িয়ে যায় সর্বত্র। হয়ে যায় ভাইরাল। এই শর্ট ফিল্মটিও একই গোত্রের যা দর্শকরা বেশ পছন্দ করছেন। কার্যত প্রায় প্রতি মিনিটে লাফিয়ে লাফিয়ে ভিউ বাড়ছে এই আর্ট ফিল্ম বা শর্ট ফিল্মে।

Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাঠকদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই