Finance News

স্বামী-ছেলের ভরসা করতে হবেনা মহিলাদের, এই সরকারি স্কীমেই থাকবে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার দুর্দান্ত সুযোগ

ভারত বর্তমানে একটি উন্নয়নশীল দেশ। ভারতে এখনো তেমনভাবে সাবলীল নন মহিলারা। এখনো অনেক রাজ্যের অনেক প্রত্যন্ত এলাকায় শিক্ষার আলোটুকু পৌঁছায়নি মহিলাদের মধ্যে। আর দেশের বেশিরভাগ মহিলা এখনো আর্থিকভাবে তেমন স্বাধীন বা স্বচ্ছল নয়। আর্থিক বিষয়ে পরিবারের থেকে সহায়তা নেওয়ার রীতি এখনো রয়ে গেছে। আর এইসব কারণে ভারত সরকার মহিলাদের সুবিধার্থে নানা প্রকল্প ও স্কিম চালু করে থাকে। এই প্রতিবেদনে এমনই একটি স্কিমকে নিয়ে আলোচনা হবে।

ভারতীয় মহিলাদের ক্ষেত্রে আর্থিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ভারতীয় অর্থমন্ত্রক সম্প্রতি একটি যোজনা চালু করেছেন। মহিলা সম্মান সেভিংস সার্টিফিকেট বা MSSC প্রকল্পটি চালু হয়েছে মহিলাদের জন্যই। চলতি বছরের ১ লা ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় বাজেটে সময় এই প্রকল্পের ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। এই প্রকল্পের অধীনে অ্যাকাউন্ট খুলে যেকোনো মহিলা ২ বছরের জন্য আর্থিক বিনিয়োগ করতে পারবেন। আর সেখান থেকেই ভবিষ্যতের জন্য দারুন পরিকল্পনা করতে পারবেন তারা। অর্থাৎ মহিলাদের জন্য একটি দারুন স্কিম হতে চলেছে এটি।

অর্থমন্ত্রক সূত্রে খবর, এই প্রকল্পের অধীনে এখন ভারতীয় মহিলা তার নিজের জন্য অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। এছাড়াও কোনো অভিভাবক তার কন্যার জন্যও এই অ্যাকাউন্ট খুলে বিনিয়োগ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রতি কিস্তিতে সর্বনিম্ন ১০০০ টাকা বিনিয়োগ করা যেতে পারে। আর ২ বছরের জন্য এই প্রকল্পের অ্যাকাউন্টে সর্বোচ্চ ২ লক্ষ টাকা অবধি জমা করা যাবে। এক্ষেত্রে সুদের হার সাধারণ সেভিংস অ্যাকাউন্টের থেকে অনেকটাই বেশি। এক্ষেত্রে একজন মহিলা ৭.৫ শতাংশ হারে সুদ পেতে পারবেন। যদিও এই প্রকল্প কিন্তু আয়কর ছাড়ের অধীনস্থ নয়।

জানা গেছে, এই অ্যাকাউন্ট কোনো মহিলা শুধুমাত্র ২ বছরের জন্য খুলতে পারবেন। এক্ষেত্রে এই অ্যাকাউন্ট ৩১ শে মার্চ ২০২৫ অবধি খোলা যাবে। পোস্ট অফিস বা ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়াতে এই অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে। তবে ২ বছরের আগে একাউন্ট হোল্ডারের মৃত্যু হলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা যাবে কোনরূপ পেনাল্টি ছাড়া। তবে অ্যাকাউন্ট খোলার ৬ মাসের মধ্যে যদি অ্যাকাউন্ট হোল্ডার এটিকে বন্ধ করতে চান, সেক্ষেত্রে ২ শতাংশ পেনাল্টি চার্জ দিতে হবে। সেক্ষেত্রে সুদের হার হবে ৫.৫ শতাংশ। অ্যাকাউন্ট খোলার ১ বছর পর একাউন্ট হোল্ডার চাইলে বিনিয়োগকৃত অর্থের ৪০ শতাংশ তুলে নিতেও পারবেন।