Bengali SerialHoop Plus

Neem Phuler Modhu: চুল নিয়ে চুলোচুলি, জাঁদরেল শাশুড়ির কারণে ন্যাড়া হবে পর্ণা!

ইদানিং ঝরে যাওয়া মাথার চুলও ফেলনা নয়। বহু মহিলা রয়েছেন যাঁরা ওই চুলগুলি জমিয়ে রেখে দেন ও তার পরিবর্তে ছোটখাট বাসন কেনেন। এবার জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘নিম ফুলের মধু’-তে উঠে এল এই কাহিনী। কিন্তু ধারাবাহিক বলে কথা। ফলে ‘নিম ফুলের মধু’ শেষ অবধি বাড়ির বৌয়ের স্বেচ্ছায় ন্যাড়া হয়ে যাওয়ার গল্প বুনল।

‘নিম ফুলের মধু’-র ভাইরাল হওয়া নতুন প্রোমোয় দেখা যাচ্ছে, পর্ণার শাশুড়ি বাড়িতে কুরুক্ষেত্র বাধিয়েছেন। কারণ পর্ণা তাঁর জমানো চুলের গোছা ফেলে দিয়েছে। তাঁর মতে, ওই চুলের গোছার বিনিময়ে তিনি দুটো গামলা ও একটি বালতি পেতেন। এমনকি পর্ণার শাশুড়ি তার মায়ের শিক্ষা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। পর্ণা শাশুড়িকে গামলা ও বালতি কিনে এনে দেওয়ার কথা বললে তিনি বলেন, পর্ণা যেন তাঁকে টাকার গরম না দেখায়। তাঁর শুধুমাত্র চুল চাই। এই কথায় রেগে গিয়ে পর্ণা শাশুড়িকে চুল এনে দেওয়ার জন্য বাড়ির সামনে রাস্তায় বসা নাপিতের কাছে চলে যায়। পিছনে দৌড়ান তার শ্বশুরবাড়ির সদস্যরাও। নাপিতের কাছে গিয়ে দাড়ি কামাতে বসা খদ্দেরকে উঠিয়ে দিয়ে পর্ণা নিজে বসে পড়ে তাকে ন্যাড়া করে দিতে বলে। চমকে ওঠেন তার শাশুড়ি।

জি বাংলার সোশ্যাল মিডিয়া পেজ থেকে এই প্রোমো ভাইরাল হওয়ার পর নেটিজেনদের মধ্যে উঠেছে হাসির রোল। অনেকে এ পর্বের নাম দিয়েছেন ‘চুল নিয়ে চুলোচুলি’। অনেকে লিখেছেন, যেমন শাশুড়ি তেমনই বৌমা। অনেকে পর্ণার শাশুড়ির বালতি, গামলার জন্য চুল ফেরত দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

উত্তর কলকাতার মধ্যবিত্ত একান্নবর্তী পরিবারের প্রেক্ষাপটে তৈরি কাহিনী ‘নিম ফুলের মধু’। ধারাবাহিকের নায়িকা পর্ণার স্বপ্ন ছিল একান্নবর্তী পরিবারে বিয়ে হয়ে সে সুখে থাকবে। কিন্তু পরিবর্তে বিয়ের পর রক্ষণশীল মনোভাবের সম্মুখীন হয় সে। চাকরি ছাড়তে বাধ্য হয় পর্ণা। শাশুড়ি ও বৌয়ের সম্পর্কের রসায়নের কাহিনী নিয়ে এগিয়ে চলেছে ‘নিম ফুলের মধু’।

whatsapp logo