whatsapp channel

Pallavi Sharma: বাস্তবেও কি যৌথ পরিবারে বিয়েতে ইচ্ছুক ‘নিম ফুলের মধু’-র পর্ণা!

বিনোদন জগতের মানুষগুলির হাসিখুশি চেহারা দেখতেই আমরা অভ্যস্ত। তাদের অভিনয়, নিয়ন আলোয় আলোকিত জীবন, আনন্দ-উছ্বাস- এসবই আমাদের চোখে ধরা দেয়। তবে তাদের এই আলোর নীচেও যে একরাশ অন্ধকার জমা হয়ে…

Avatar

Debaprasad Mukherjee

বিনোদন জগতের মানুষগুলির হাসিখুশি চেহারা দেখতেই আমরা অভ্যস্ত। তাদের অভিনয়, নিয়ন আলোয় আলোকিত জীবন, আনন্দ-উছ্বাস- এসবই আমাদের চোখে ধরা দেয়। তবে তাদের এই আলোর নীচেও যে একরাশ অন্ধকার জমা হয়ে থাকে, সবার আড়ালে, সেটা বোঝার ক্ষমতা বা দক্ষতা খুব কম মানুষের রয়েছে। বাস্তব জীবনে কতটা দুঃখ-কষ্ট-আক্ষেপ লুকিয়ে রেখেও পর্দার জীবনে জীবন্ত হতে হয় তাদের, তা হয়তো শিল্পীদের থেকে ভালো কেউই বোঝেন না। এই প্রতিবেদন এমনই একজন অভিনেত্রীকে নিয়ে।

সম্প্রতি, ছোট পর্দায় ‘নিম ফুলের মধু’ ধারাবাহিকের সম্প্রচার শুরু হয়েছে। আর শুরু থেকেই বাজিমাত করছে এই ধারাবাহিক। টিআরপি তালিকার প্রথম পাঁচে রয়েছে তার নিত্য আনাগোনা। আর এসবের মাঝে রয়েছে এই ধারাবাহিকের কেন্দ্রীয় চরিত্র পর্ণা ওরফে পল্লবী শর্মা (Pallavi Sharma)। তার জীবন্ত অভিনয় মন কেড়েছে দর্শকদের। বর্তমানে ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী পর্ণা হল বড় পরিবারের এক পুত্রবধূ। নানা সাংসারিক কূটকাচালি রয়েছে তাকে ঘিরে। কিন্তু গল্পের পর্ণার সঙ্গে বাস্তবের পল্লবীর মিল কতটা? বাস্তবে কি পল্লবীও এমন ‘জয়েন্ট ফ্যামিলি’তেই থাকতে চায়, নাকি সে চায় ছোট্ট ‘মাইক্রোকসমিক’ পরিবার? সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এসবের উত্তর দিলেন অভিনেত্রী।

পর্দার পর্ণা বলেন, “আসলে ছোটবেলা থেকে তো মা-বাবার ভালোবাসা পাই নি। তাই আমি চাইব যে বাড়িতে আমার বিয়ে হবে সেখানে যেন আমি মা-বাবার ভালোবাসা পাই। আর আমার যে বর হবে সে যেন আমার খুব ভালো বন্ধু হয়। আমাকে সবরকমভাবে সাপোর্ট করবে। একজন দায়িত্বপূর্ণ মানুষ হতে হবে।” এছাড়াও রিল লাইফের সঙ্গে রিয়েল লাইফের মিল খুঁজতে খুঁজতে অভিনেত্রী জানান, “আমার নিজের সঙ্গে পর্ণার অনেকটা মিল আছে। পর্ণার মতো পল্লবীও কিন্তু হাসিঠাট্টা করতে ভালোবাসে। নিম ফুলের মধু-র পর্ণা যৌথ পরিবারকে এত ভালোবাসে যে মানিয়ে-গুছিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে। পল্লবীর মধ্যেও পর্ণার এই গুণ রয়েছে।”

প্রসঙ্গত, খুব অল্প বয়সেই অভিনেত্রী পল্লবী শর্মার মা ব্রেইন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তার কয়েকবছর পর তার বাবাও পার্থিব মায়া ত্যাগ করেন। ছোট থেকেই এক পিসির কাছে মানুষ হন অভিনেত্রী। তাই মা-বাবার ভালোবাসা ও স্নেহ পাওয়ার আক্ষেপ যার রয়েই গেছে শৈশব থেকেই। একবার ‘দিদি নং-১’-এর মঞ্চে এসে নিজের মুখে এসব কথা স্বীকার করেছিলেন অভিনেত্রী নিজে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by ZEE5 Bangla (@zee5_bangla)

Avatar

Hoophaap-এর সম্পাদক দেবপ্রসাদ বিগত কয়েক বছর যাবৎ সাংবাদিকতার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ার হাত ধরেই সাংবাদিকতায় হাতেখড়ি। রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা, লাইফস্টাইল, প্রযুক্তি প্রভৃতি সব ধরণের খবরের উপস্থাপনার কাজে যথেষ্ট সাবলীল। নিউজ ডেস্ক ছাড়াও রয়েছে ভিডিও এডিটিং এবং ক্যামেরার পিছনে বিচিত্র অভিজ্ঞতা