whatsapp channel

স্বল্প মাসিক বিনিয়োগে অধিক উপার্জনের সুযোগ, দুর্দান্ত স্কীম পোস্ট অফিসের, জানুন বিস্তারিত

পোস্ট অফিসের জনপ্রিয় স্কীম গুলির মধ্যে একটি হলো মাসিক সেভিংস স্কীম। এই মাসিক সেভিংস স্কীমে পোস্ট অফিসে ব্যাংকের থেকেও বেশি সুদ পাওয়া যায়। পোস্ট অফিসের মাসিক সেভিংস স্কীমে সুদ পাওয়া…

Avatar

HoopHaap Digital Media

পোস্ট অফিসের জনপ্রিয় স্কীম গুলির মধ্যে একটি হলো মাসিক সেভিংস স্কীম। এই মাসিক সেভিংস স্কীমে পোস্ট অফিসে ব্যাংকের থেকেও বেশি সুদ পাওয়া যায়। পোস্ট অফিসের মাসিক সেভিংস স্কীমে সুদ পাওয়া যায় ৬.৬ শতাংশ, যা অনেক ব্যাংকের থেকেই বেশি। পোস্ট অফিসের এই স্কীমে সর্বনিম্ন ১০০০ টাকা দিয়ে অ্যাকাউন্ট খোলা যায়। এই স্কীমের মেয়াদ মাত্র পাঁচ বছর। পাঁচ বছর পর আপনি সুদ সহ পুরো টাকাটাই ফেরত পেয়ে যাবেন।

সিঙ্গল এবং জয়েন্ট দুভাবেই খোলা যায় এই অ্যাকাউন্ট। সিঙ্গল অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে বছরে সর্বাধিক চার লক্ষ টাকা পর্যন্ত জমা করা যায় এবং জয়েন্ট অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে এই টাকার পরিমাণ সর্বাধিক নয় লক্ষ টাকা। ম্যাচিউরিটির আগে জমানো টাকা তুলতে গেলে স্কীমের বয়স কমপক্ষে এক বছর হতে হবে। এই বিনিয়োগে পোস্ট অফিস সুদ দেয় ৬.৬ শতাংশ। এই সুদ বছরের ১২ মাসে ভাগ করে নেওয়া হয় এবং প্রতি মাসে অ্যাকাউন্টে সুদের টাকা জমা পড়ে। আপনি যদি কোনো মাসে টাকা না তোলেন তাহলে সেই টাকার উপরেও সুদ পাবেন।

এই স্কীমটি সর্বাধিক পাঁচ বছরের। তবে আপনি যদি স্কীমটিকে এক থেকে তিন বছরের মধ্যে বন্ধ করে দেন তাহলে ২% টাকা কেটে নেওয়া হবে। ২% কাটার পর বাকি টাকা ফেরত পাবেন। তিন বছরের পুরনো অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে এই টাকা কাটার পরিমাণ ১%। আপনি যদি এই স্কীমের আওতায় সাড়ে চার লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেন তাহলে বার্ষিক রিটার্ন পাবেন ২৯,৭০০ টাকা অর্থাৎ প্রতি মাসে ২,৪৭৫ টাকা। এই অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য প্রথমে আপনাকে পোস্ট অফিসে একটি সেভিংস অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। তারপর মাসিক আয় স্কীমের জন্য একটি ফর্ম ফিলাপ করতে হবে।

Avatar