Advertisements

Cooking Tips: মেনে চলুন কিছু ছোট্ট টোটকা, দীর্ঘদিন রুটি থাকবে নরম তুলতুলে

Nirajana Nag

Nirajana Nag

Follow

ভাত যেমন ভারতীয়দের প্রিয় খাবার, রুটির (Roti) জনপ্রিয়তাও তেমন কম নয়। অনেকেই ওজন নিয়ন্ত্রণ করার জন্য দিনে দু বেলাই রুটি খেয়ে থাকেন। ব্রেকফাস্ট থেকে শুরু করে লাঞ্চ বা ডিনারেও রুটি খান অনেকেই। বর্তমানে সারাদিনের কর্মব্যস্ততার মধ্যে অনেকেই সকালে রুটি করে রেখে দেন। একবারে রাতের খাবারটা বানিয়ে রেখে দিলে সময়টা অনেকটাই বেঁচে যায়। কিন্তু রাতের রুটি সকালে করে ফ্রিজে রেখে দিলে অনেক সময়ই তা শক্ত হয়ে যায়। তার উপরে ঠাণ্ডা রুটি গরম করতে গিয়ে আরোই শক্ত হয়ে যায়।

আসলে রুটি করার আগে আটা মাখার সময়ে রয়েছে ছোট্ট ছোট্ট কিছু কৌশল, যেগুলি মানলে আর শক্ত হওয়ার ভয় থাকে না। রুটি হয় তুলতুলে নরম। আটা মাখার সময়ে পরিমাণ মতো জল দেওয়ার পাশাপাশি সামান্য তেল বা ঘি দিয়ে দিতে পারেন। এতে রুটি হবে নরম। আটা মাখার সময়ে তেল দিলে আটা থাকবে নরম। পাশাপাশি রুটি করে ফ্রিজে রেখে দিলেও তা নরমই থাকবে। বা আটা মাখার সময়ে সামান্য ময়দা মেশাতে পারেন। এতেও নরম রুটি তৈরি হবে।

রুটিতে আর্দ্রতা থাকলে রুটি শক্ত হয়ে যায়। তাই রুটি সেঁকার পর কাগজ বা টিস্যু পেপারে রেখে দিলে রুটি নরম থাকে। রুটি ফ্রিজে রাখলেও কোনো এয়ার টাইট পাত্রে রাখতে হবে। হাওয়া লাগলে রুটি শক্ত হয়ে যাবে। কিংবা আটা মেখে ফ্রিজে রেখে দেওয়া যেতে পারে। রাতে খাওয়ার সময়ে রুটি বেলে সেঁকে নিলেই হবে নরম রুটি।

আর যদি ফ্রিজ থেকে বের করে রুটি গরম করতেই হয় তাহলে একটি প্লেটে রুটি সাজিয়ে মাঝে একটি বাটিতে জল রেখে ১৯০ ডিগ্রিতে ১ মিনিট মাইক্রোওয়েভ ওভেনে গরম করলেই রুটি নরম হবে। নয়তো চাটুতে হালকা গরমও করে নেওয়া যাবে রুটি। কিংবা রুটি সেঁকার সময়ে সামান্য মাখন বা তেল দিয়ে ভেজে নিলেও রুটি নরম থাকবে। এছাড়া গরম জলে রুটি ডুবিয়েই সঙ্গে সঙ্গে তুলে নিতে পারলেও রুটি থাকবে নরম তুলতুলে।

Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখা...

Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow