Finance News

মহিলাদের লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের পর এবার পুরুষরাও পাবেন টাকা, আসতে চলেছে গণেশ ভাণ্ডার?

Advertisements

সদ্য মিটেছে লোকসভা নির্বাচন। বাংলায় বিরোধীদের মাথা তুলেই দাঁড়াতে দেয়নি শাসক দল তৃণমূল। প্রায় রাজ্যের সর্বত্র দেখা গিয়েছে সবুজ ঝড়। গত বারের তুলনায় এবার আরো কম আসন পেয়েছে বিজেপি। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, মহিলা ভোটের সিংহভাগটাই গিয়েছে সবুজ শিবিরে, যা তাদের জয়ের অন্যতম কারণ। আর এর জন্য তৃণমূলের মাস্টারস্ট্রোক মনে করা হচ্ছে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারকে (Lokkhir Bhandar)।

কেন জনপ্রিয় লক্ষ্মীর ভাণ্ডার?

পরিবারের মহিলাদের আর্থিক ভাবে স্বাধীন করে তুলতে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের অবতারণা করা হয়েছিল। বিগত দু বছর ধরে গোটা রাজ্যের বহু মহিলা এই প্রকল্পের জোরে লাভবান হয়েছেন। এই প্রকল্পে মাসে ৫০০ টাকা করে পেতেন জেনারেল কাস্টের মহিলারা। আর তফসিলি জাতি এবং উপজাতি ভুক্ত মহিলাদের জন্য ১০০০ টাকা করে দেওয়া হত লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পে। তবে এই টাকার পরিমাণ সম্প্রতি ১০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ১২০০ টাকা। আর যারা ৫০০ টাকা করে পেতেন তারা পাচ্ছেন ১০০০ টাকা। এমনকি এবার শোনা যাচ্ছে, আরো বাড়তে চলেছে প্রকল্পের টাকা।

মহিলাদের লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের পর এবার পুরুষরাও পাবেন টাকা, আসতে চলেছে গণেশ ভাণ্ডার?

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল দাবি

লোকসভা নির্বাচন শুরুর আগে আগেই লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের টাকার পরিমাণ বাড়ানো হয়েছিল। সেই সঙ্গে এই প্রকল্প নিয়ে প্রচারও বাড়ানো হয়েছিল সরকারের তরফে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের অনেকের মতেই, এবারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় সবুজ ঝড়ের নেপথ্যে অনেকটাই অবদান রয়েছে লক্ষ্মী ভাণ্ডারের। তাই অনেকের মতেই এবার সম্ভবত লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা আরও বাড়তে পারে। সেই সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে আরো এক গুঞ্জন।

এবার আসছে গণেশ ভাণ্ডার?

সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ রাখলেই একটি মিম চোখে পড়বে। ভাইরাল সেই মিমে দাবি করা হচ্ছে, মহিলারা যখন লক্ষ্মী ভাণ্ডারের মাধ্যমে ১০০০-১২০০ টাকা পাচ্ছেন, তখন পু্রুষরা কী দোষ করল! এবার যদি পুরুষদের জন্যও একটি গণেশ ভাণ্ডার চালু করা হয় তাহলে আগামী নির্বাচনে ৪২-এ ৪২ আসনই পাবে তৃণমূল। যদিও নেহাত মজা করেই বানানো হয়েছে মিমটি। এ বিষয়ে কোনো রকম সরকারি ঘোষণা করা হয়নি।

Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাঠকদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই