Bengali SerialHoop Plus

John Bhattacharya: শুটিংয়ে গুরুতর আহত মিঠাই ধারাবাহিকের ওমি

জি বাংলার জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘মিঠাই’-এর নবতম সংযোজন ছিল ওমির চরিত্র। মিঠাই ও ‘উচ্ছেবাবু’ সিডের জীবন দুর্বিষহ করে তুলতে জুড়ি নেই ওমির। তার হাত ধরেই দর্শকরা জানতে পেরেছিলেন প্লাস দিয়ে বাড়ির ছেলে বম্ব ডিফিউজ করতে পারে। প্রয়োজন হয় না বম্ব ডিফিউজাল স্কোয়াডের। কিন্তু এবার ওমির রোমহর্ষক অ্যাডভেঞ্চার শেষ হতে চলেছে। চিত্রনাট্য যেমনই হোক না কেন, অভিনেতা জন ভট্টাচার্য (John Bhattacharya) কিন্তু ওমির চরিত্রে অভিনয় করে যথেষ্ট প্রশংসিত হয়েছিলেন। তবে শেষবেলায় এসে আঘাত পেলেন তিনি।

ওমি চরিত্রের শেষ শটে চিত্রনাট্য অনুযায়ী, গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হওয়ার কথা মিঠাই-এর জীবনের ভিলেনের। কিন্তু শেষ শট দিতে গিয়ে পিস্তলের বারুদের কারণে আঙুল থেকে রক্ত তো ঝরেছেই, পায়েও যথেষ্ট চোট পেয়েছেন জন। তবে তা নিয়েই শুটিং সম্পূর্ণ করেছেন তিনি। ওমি চরিত্রটি জন অভিনীত প্রথম খলনায়ক চরিত্র। প্রথমবার খল চরিত্রে অভিনয় করতে গিয়ে জনের মনে সন্দেহ ছিল, দর্শকরা তাঁকে কতদূর গ্রহণ করতে পারবেন! ভয় পেয়েছিলেন জন। কিন্তু ধীরে ধীরে ওমির চরিত্রে জনকে পছন্দ হয়েছিল দর্শকদের। ওমির প্রতি দর্শকদের রাগই হল জনের অভিনয়ের সফলতা। শেষবার ওমির চরিত্রে অভিনয়ের পর টিম ‘মিঠাই’-এর পাশাপাশি মন খারাপ জনেরও।

ওমিকে মিস করবেন দর্শকরা। তবে জন আবারও ফিরছেন নতুন রূপে। সান বাংলার নতুন সিরিয়াল ‘আলোর ঠিকানা’-য় দেবাদৃতা বসু (Debadrita Basu)-র বিপরীতে অভিনয় করছেন জন। খুব শীঘ্রই শুরু হয়ে যাবে নতুন সিরিয়ালের শুটিং। ‘আলোর ঠিকানা’ প্রযোজনা করছে সুরিন্দর ফিল্মস। এর আগেও সুরিন্দর ফিল্মসের সাথে কাজ করেছেন জন।

‘আলোর ঠিকানা’ নিয়ে উচ্ছ্বসিত জনের লুক সেট হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। জানা গিয়েছে, ‘আলোর ঠিকানা’-র কাহিনী হতে চলেছে মহিলাকেন্দ্রিক। তবে যাই হোক, আপাতত দর্শকরা অপেক্ষায় জনকে ফিরে পাওয়ার।