Advertisements

২৬ লক্ষ টাকার প্রতারণার অভিযোগ, একটি অটোগ্রাফেই বড় বিপদ, ভয়াবহ অভিজ্ঞতা মানসী সিনহার

Nirajana Nag

Nirajana Nag

Follow
Advertisements

বিনোদন জগতে প্রতারণার ঘটনা নতুন নয়। আর অভিনয় থেকে প্রথম বার পরিচালকের আসনে বসেই প্রতারণা বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন মানসী সিনহা (Manasi Sinha)। ২৬ লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। আপাত সাদাসিধে, প্রাণখোলা মানুষ মানসী সিনহার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগে চমকেছিলেন অনেকেই। শেষমেষ অবশ্য সেসব বিতর্ক দূরে সরিয়ে আগামী ২৬ এপ্রিল মুক্তি পেতে চলেছে তাঁর পরিচালিত প্রথম ছবি ‘এটা আমাদের গল্প’। তার আগে বিষয়টা নিয়ে মুখ খুললেন মানসী।

অটোগ্রাফের ফাঁদে পড়ে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছিল মানসীর বিরুদ্ধে। তাঁর দেওয়া একটি অটোগ্রাফের মূল্য যে এভাবে চোকাতে হবে তা ভাবতেও পারেননি অভিনেত্রী। ঠিক কী হয়েছিল? সংবাদ মাধ্যমকে মানসী জানান, তাঁর পরিচালিত ছবিটি প্রথম শুট হয়েছিল ২০২০ সালে। সে সময়ে এই ছবির প্রযোজক ছিলেন শর্মিষ্ঠা ঘটে, যিনি দীপঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফাইনান্সার হিসেবে নিযুক্ত করেছিলেন। দীপঙ্কর এই ছবিতে অনেক পরিমাণে টাকা বিনিয়োগ করলেও শর্মিষ্ঠার কাছ থেকে টাকার সঠিক হিসেব পাননি। তারপর তিনি যেমন টাকা দেওয়া বন্ধ করে দেন, তেমনি শর্মিষ্ঠা ঘোষকেও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। মানসী জানান, তখন শর্মিষ্ঠার কাছ থেকে NOC নিয়ে অন্য প্রযোজকের সাহায্যে ছবিটি শেষ করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। কিন্তু সে সময়ে দীপঙ্করের নাম উল্লেখ করতে দেননি শর্মিষ্ঠা, যেহেতু তাঁর সঙ্গে কোনো চুক্তি হয়নি।

মানসী জানান, অন্য প্রযোজকদের সঙ্গে কাজ করার সময় কিন্তু তিনি দীপঙ্করের বিনিয়োগের কথাটা পরিষ্কার ভাবেই তাঁদের জানিয়েছিলেন। কিন্তু এদিকে দীপঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায় ভেবে নেন যে মানসীও হয়তো শর্মিষ্ঠা ঘোষের মতো তাঁর টাকা হজম করে ফেলবেন। তিনি কেস করেন মানসীর বিরুদ্ধে, চিঠি পাঠিয়ে অভিযোগ করেন যে অভিনেত্রী নাকি তাঁর টাকা গায়েব করেছেন। পালটা মানসী তাঁকে বোঝান যে, তাঁর টাকা তিনি পেয়ে যাবেন। কিন্তু শর্মিষ্ঠা ঘোষের সঙ্গে চুক্তি না করে ভুলটা তিনিই করেছেন।

কিন্তু দীপঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায় মানসীর বিরুদ্ধেই অভিযোগ করেন। এদিকে অভিনেত্রী জানান, ছবির শুটিংয়ের শুরুর দিকে নাকি মানসীর থেকে অটোগ্রাফ নিয়েছিলেন দীপঙ্কর। তবে মানসী জানান, দীপঙ্কর জানতেন না যে সেটা তাঁর অফিশিয়াল সই নয়। অটোগ্রাফের কাগজে চিঠি টাইপ করে তিনি অভিযোগ করেছিলেন, মানসীই নাকি তাঁর কাছ থেকে টাকা নিয়েছিলেন। বাধ্য হয়ে নরেন্দ্রপুর থানায় দীপঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান মানসী। পুলিশ ট্র্যাক করে দেখে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় রয়েছেন তিনি। শেষমেষ গত মঙ্গলবার বাঁকুড়া থেকে গ্রেফতার করা হয় দীপঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

Nirajana Nag
Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখা...

Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow