whatsapp channel

Viral: গড়গড়িয়ে ইংরেজিতে কথা বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাক লাগালেন রানু মন্ডল, মুহূর্তে ভাইরাল ভিডিও

রানাঘাটের স্টেশনে একসময় ভিক্ষা করতেন রানু মন্ডল। তারপরে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তিনি চলে গেলেন বোম্বেতে। সেখানে গিয়ে বেশ কয়েকদিন জমিয়ে গান-বাজনা করার পরে আবারও তিনি ফিরে আসেন। অনেকে বলেছিলেন অহংকার…

Avatar

রানাঘাটের স্টেশনে একসময় ভিক্ষা করতেন রানু মন্ডল। তারপরে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তিনি চলে গেলেন বোম্বেতে। সেখানে গিয়ে বেশ কয়েকদিন জমিয়ে গান-বাজনা করার পরে আবারও তিনি ফিরে আসেন। অনেকে বলেছিলেন অহংকার মানুষের পতনের কারণ। তার উসকো খুসকো চুলে তিনি হঠাৎ করে মুম্বাইতে গিয়ে বিউটি পার্লারে সেজেগুজে একবারে চকমকে হয়ে সকলের সামনে হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে গান পরিবেশন করেছিলেন। মাত্র কয়েক দিনে এত বড় উঠে যাওয়ায় রানু মন্ডলের পতনের কারণ হলো কারণ তার মধ্যে কোথাও যেন একটা অহংকারবোধ কাজ করছিল। এমন অনেক ভিডিও আমরা দেখেছি।

মুম্বাই থেকে ফিরে আসার পরই রানুদির অবস্থা একেবারে আগের মতন মাঝেমধ্যে ইউটিউবাররা গেলে তার জন্য খাবার নিয়ে যান বা মাঝেমধ্যে কেউ হয়তো হাতে টাকা করে দেয় কিন্তু বাড়ি ঘরের অবস্থা দেখেই বোঝা যায় যে রানুদি কিন্তু খুব একটা ভালো অবস্থায় নেই। কখনো তার ভিডিও নিয়ে হাসাহাসি হয়, আবার কেউ কেউ রানুদির পাশেও থাকেন। আসলে একথা সত্যি মানুষের মধ্যে যদি সত্যিকারে প্রতিভা না থাকে, তাহলে কেহই কোনদিন বেশি দূর পর্যন্ত এগোতে পারেনা। রানুদি-কে হয়তো সেই ভাবে কেউ সাহায্য করেননি। সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার। অনেকেই রানুদি-কে মস্তিষ্ক বিকৃতি বলেও বিবেচনা করে থাকেন, আসলে কি জিনিসটা বোঝার ক্ষমতা হয়তো আমাদের কারণেই রানুর গলায় মধ্যে কিন্তু সুদ ছিল যাই হোক ভাগ্যের পরিহাসে রানুদি আপাতত আগের অবস্থায় ফিরে এসেছে।

সম্প্রতি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, ইউটিউবার দাদা তার জন্য কমলালেবু নিয়ে গেছেন। আর কমলালেবু নিয়ে যেতেই রানুদি তারস্বরে চিৎকার করে বলছেন, এটা কি দার্জিলিং না সিমলার? মাঝে মধ্যে ইংরেজিতেও কথা বলছেন। আবার বলছেন, যে তিনি কিভাবে ওয়ান, টু বলা শিখেছেন। তার বাবা মা তাকে একেবারেই পড়াশোনা করার নেই বাবা-মার প্রতি ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন রানুদি। রানুদির ভিডিও ভাল করে দেখলে খেয়াল করবেন তার একটা কথার সঙ্গে আরেকটি কথার কোন মিল থাকেনা। তাই তিনি কখন কি কথা বলছেন তিনি নিজেই ঠিকঠাক করে জানেন না। ভিডিওটি দেখে আপাতত প্রত্যেকেই নানান রকমের মন্তব্য করেছেন। তার মধ্যে খারাপ মন্তব্য বেশি এসেছে। যাই হোক ও একদিনের জন্য হলেও রানুদি কিন্তু সকলের চোখে সেলিব্রেটি হয়েছে। তাই আর দেরি না করে জলদি দেখে ফেলুন অসাধারণ এই ভিডিওটি।