whatsapp channel

Web Series: স্বামীর অবর্তমানে অন্ধ দেওরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হলেন বৌদি, শীতেও ভরপুর বিনোদন দেবে এই সিরিজ

ভারতে পর্ণ সাইট ব্যান করলেও অ্যাডাল্ট ওয়েব সিরিজে ভরে গিয়েছে ওটিটিগুলি। একের পর এক নতুন ওটিটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি হচ্ছে যেগুলির পরিচয় যথেষ্ট স্বল্প। এর মধ্যে রয়েছে র‌্যাবিট মুভিজ। এই ওটিটি…

Avatar

Nilanjana Pande

ভারতে পর্ণ সাইট ব্যান করলেও অ্যাডাল্ট ওয়েব সিরিজে ভরে গিয়েছে ওটিটিগুলি। একের পর এক নতুন ওটিটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি হচ্ছে যেগুলির পরিচয় যথেষ্ট স্বল্প। এর মধ্যে রয়েছে র‌্যাবিট মুভিজ। এই ওটিটি প্ল্যাটফর্মের ওয়েব সিরিজগুলিতে দেখানো হয় অযথা যৌনতা। অ্যাপটিও ঠিকমতো সাবস্ক্রিপশন করা যায় না। দর্শকদের বারবার অভিযোগ সত্ত্বেও র‌্যাবিট মুভিজ সমস্যার সমাধান করেনি। নির্মাতারা শুধুমাত্র একের পর এক অ্যাডাল্ট ওয়েব সিরিজ স্ট্রিম করতেই ব্যস্ত। চলতি বছরের 7 ই অক্টোবর র‌্যাবিট মুভিজের ইউটিউব চ্যানেলে লঞ্চ হয়েছে অ্যাডাল্ট ওয়েব সিরিজ ‘অন্ধে কা ডান্ডা কিস মে ঘুসেগা?’-র অফিশিয়াল ট্রেলার। এখনও অবধি এই ট্রেলারের ভিউ মাত্র চৌত্রিশ হাজার অতিক্রম করেছে। কারণ অযথা যৌনতা বর্তমানে দর্শকদেরও পছন্দ হচ্ছে না।

এই ওয়েব সিরিজের মুখ্য চরিত্র করিশ্মা নামে একটি মেয়ে। সে তার কাকার গ্রামের বাড়িতে ছুটি কাটাতে আসে। কিন্তু কথায় কথায় করিশ্মার আসার ব্যাপারে তার কাকা বলে দেয় পাড়ার ছেলেদের। করিশ্মাকে ডিপ নেক পোশাকে গ্রামে প্রবেশ করতে দেখে দুটি ছেলে। তাদের মধ্যে একজন অন্ধ। অন্ধ ছেলেটির নাম নয়নসুখ। কিন্তু তার বন্ধু অন্ধ না হলেও নিজের চোখ কালো রঙের সানগ্লাসে আবৃত করে অন্ধত্বের ভান করে করিশ্মার সামনে। অন্ধ হওয়া সত্ত্বেও তার আচরণ করিশ্মাকে মুগ্ধ করে। বিভিন্ন অছিলায় ছেলেটি ছুঁতে চায় করিশ্মাকে। কিন্তু একসময় করিশ্মার সাথে অন্ধ ছেলেটির দেখা হলে সে তাকে তিরস্কার করে বলে, তার বন্ধু অন্ধ হয়ে করিতকর্মা। অথচ সে গাছের তলায় বসে ধূমপান করছে!

কিন্তু অন্ধ ছেলেটি তাকে বলে, সে-ই প্রকৃতপক্ষে দৃষ্টিহীন। করিশ্মা তার কথা বিশ্বাস করে না। অপরদিকে এই ঘটনার বৃত্তে প্রবেশ করে একজন বিবাহিত মহিলা। সে অন্ধ ছেলেটির দৃষ্টিহীনতার ফায়দা লুটতে চায়। ক্ষেতের মাঝে নিয়ে গিয়ে নিজের স্তন স্পর্শ করায় অন্ধ ছেলেটিকে দিয়ে। বিবাহিত মহিলা অন্ধ ছেলেটিকে প্রলুব্ধ করতে চায় তার শরীর দিয়ে।

প্রকৃতপক্ষে, ওই মহিলা পাড়ার ছেলেদের সাথে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করে। তা নিয়ে সে গর্ব করে করিশ্মাকে বলে, সারা গ্রামে তার সাথে কেউ লড়তে পারবে না। করিশ্মা কারণ জিজ্ঞাসা করলে সে বলে, তার গালিগালাজের কারণে সকলে তাকে ভয় পায়। ওদিকে নয়নসুখের বন্ধু মানসিক অবসাদে ভোগে ও ভাবে জীবনের সব আনন্দ নয়নসুখ পাচ্ছে এবং তা অন্ধ হয়েও। বাকি কাহিনী জানতে হলে সাবস্ক্রাইব করতে হবে র‌্যাবিট মুভিজ।