Hoop Life

Lifestyle: মেয়েদের শরীরের এই বিশেষ অঙ্গে লোম থাকলে স্বামীরা হন ভাগ্যবান!

Advertisements

শুধু হেয়ার কাটিং বা মেক আপ নয়, মেয়েরা বিউটি পার্লার যান শরীরের অবাঞ্ছিত লোম তুলে ফেলার জন্য। শরীরের নানান অংশের লোম তুলে ঝাঁ চকচকে লুক নিয়ে তারা থাকতে পছন্দ করে, এমনকি মেয়েরা এটাও ভাবেন যে অবাঞ্ছিত লোম তুলে ফেললে শরীরে ঘাম কম হয়, দুর্গন্ধ কম হয় এবং গ্ল্যামারাস লাগে। এমত, অবস্থার সমুদ্র শাস্ত্র বলছে, মেয়েদের শরীরেও লোম থাকা ভালো। পুরুষদের জন্য সেই লোম সৌভাগ্য এনে দেয়, চলুন জানি বিস্তারিত।

জ্যোতিষ শাস্ত্র অনেকেই মানেন, কেউ কেউ আংশিক মানেন আবার কেউ কেউ একদমই মানেন না। এই পুরো ব্যাপারটা হল বিশ্বাসের উপর, কে কোন বিষয় মানবেন বা মানবেন না পুরোটাই তার ব্যাক্তিগত সিদ্ধান্ত। কিন্তু, এই প্রতিবেদন আপনাকে জানাবে সমুদ্র শাস্ত্র অনুযায়ী কিছু তথ্য, যা মহিলাদের শরীরের লোম ও শরীরের কিছু গোপন অংশকে কেন্দ্র করে । মহিলাদের শরীরের লোম থাকা কতটা সৌভাগ্যজনক সেই নিয়ে আলোচনার পূর্বে জানাই সমুদ্র শাস্ত্র কী? এই সমুদ্র শাস্ত্র(Samudrik Shastra) হল বৈদিক যুগের।ঋষি সমুদ্র এই শাস্ত্র রচনা করেন বলে এর নাম সমুদ্র শাস্ত্র। এটি সমুদ্র থেকে উঠে আসা কোনো শাস্ত্র নয়। ব্যক্তির স্বভাব, গুণ জানার জন্য যেমন কোষ্ঠি বিচার করা হয়, তেমনই সমুদ্র শাস্ত্র হল ব্যক্তির চরিত্রের বিভিন্ন দিক জানার অন্যতম উপায়। অনেকেই আছেন, সমুদ্র শাস্ত্র মেনে মানুষের গুন প্রকৃতি বিচার করেন।

তাহলে মেয়েদের কোন কোন অংশে লোম থাকা খুবই উত্তম ও সৌভাগ্যময়? শাস্ত্র অনুযায়ী মেয়েদের তিনটি অংশে যদি লোম থাকে তবে তারা নিজেরা খুব সুখী, সৌভাগ্যবতী, ধনী ও পণ্ডিত হয়। মেয়েদের এই বিশেষ তিন স্থানে লোম থাকলে তাদের স্বামীরা আর্থিক দিক থেকে শক্তিশালী হয়।

যেই মেয়েদের কানে চুল বা লোম বা পশম থাকে এবং যেই মেয়েদের পিঠে লোম বা পশম বা চুল থাকে তাদের বৃহষ্পতি তুঙ্গে থাকে এবং স্ত্রীর ভাগ্যে স্বামী ভাগ্যবান হয়। এমনকি, যেই মেয়ের চুল ঘন, লম্বা হয় তাদের স্বামীর ঘরে শ্রী বৃদ্ধি হয়।

Disclaimer: এই প্রতিবেদনের লিখিত তথ্য সমূদ্র শাস্ত্র নির্ভর। কাউকে আঘাত করার উদ্দেশ্যে নয়, কোনো কিছু বিশ্বাসের পূর্বে নিজস্ব বিচার বুদ্ধির উপর জোর দেওয়া ভালো।