Hoop Life

Marigold: “দূরে রাখে গ্যাস্ট্রিক, সাধারণ গাঁদা ফুলেই লুকিয়ে অসাধারণ ত্বকের সিক্রেট

গাঁদা ফুলের (Marigold Flower) সৌন্দর্যে মুগ্ধ কম বেশি সকলেই। বাগান সাজানোর ক্ষেত্রে হোক বা ছাদের টবে, গাঁদা অনেকেরই প্রিয় ফুল। যেকোনো পুজো, অনুষ্ঠানে তো গাঁদা ফুলের চাহিদা থাকে আকাশছোঁয়া। তবে এগুলি ছাড়াও গাঁদার যে আরো অনেক গুণ রয়েছে তা জানেন না অনেকেই। শরীরের একাধিক উপকার করে এই ফুল। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে শুরু করে ত্বক এবং চুলের একাধিক সমস্যায় কাজে লাগে গাঁদা।

চা তো সকলেই পান করে থাকেন নিয়মিত। অনেকের কাছেই চা পান নেশার মতো। এখন আবার বিভিন্ন ফুল দিয়েও হার্বাল টি প্রস্তুত করা যায়। এর মধ্যে রয়েছে গাঁদাও। এই ফুল দিয়ে তৈরি চা পান করলে গ্যাস্ট্রিকের মতো সমস্যা দূর হয়। হজম শক্তি বাড়ে এই চা খেলে। পাশাপাশি ত্বকের একাধিক সমস্যায় খুব ভালো কাজ করে গাঁদা ফুলের চা। ব্রণর সমস্যা দূর করে ত্বক মসৃণ করে গাঁদা ফুল দিয়ে তৈরি চা। নিয়মিত পান করলে নাছোড়বান্দা ব্রণর সমস্যা দূর হয়।

কোথাও কেটে গেলে রক্ত পড়া বন্ধ না হলে গাঁদা ফুলের পাতা খুব উপকারে লাগে। গাঁদা ফুলের পাতা বেটে বা পিষে ক্ষত স্থানে লাগিয়ে দিলে রক্ত তো পড়া বন্ধ হয়ই, উপরন্তু ক্ষতও দ্রুত সারতে সাহায্য করে এই ফুলের পাতার রস। গাঁদা ফুলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা ক্যানসারের ক্ষতিকারক কোষ শরীরে বৃদ্ধি রুখে দেয়। মারণ রোগের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে গাঁদা ফুল।

চুলে খুশকির সমস্যা থাকলে গাঁদা ফুল খুব উপকারে আসে। এই ফুল বেটে নারকেল তেলের সঙ্গে মিশিয়ে চুলে মাখলে খুশকির সমস্যা দূর হওয়ার পাশাপাশি চুল কালোও হয়। একটানা ১০-১৫ দিন ধরে এই তেল মেখে যেতে হবে। এছাড়াও গাঁদা ফুলের নির্যাস নানান সুগন্ধি তৈরিতেও ব্যবহৃত হয়।

Disclaimer: বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ এবং মতামতের ভিত্তিতে লেখা হয়েছে প্রতিবেদনটি। ব্যক্তিবিশেষে এর ফল হতে পারে ভিন্ন।