whatsapp channel

Aindrila Sharma: রাখির দিনে স্বর্গীয় বোনের উদ্দেশ্যে বুকফাটা হাহাকার ঐন্দ্রিলার দিদি ঐশ্বর্যর!

চলে গিয়েছেন ঐন্দ্রিলা শর্মা (Aindrila Sharma), বহু দূরে, এক অচেনা আলোর জগতে। তাঁর স্মৃতি আঁকড়ে পড়ে রয়েছেন ইন্দ্রপ্রস্থের শর্মা পরিবার। রয়েছেন মা, বাবা, বড় দিদি ঐশ্বর্য শর্মা (Aishwarya Sharma), সন্তানসম…

Avatar

Nilanjana Pande

চলে গিয়েছেন ঐন্দ্রিলা শর্মা (Aindrila Sharma), বহু দূরে, এক অচেনা আলোর জগতে। তাঁর স্মৃতি আঁকড়ে পড়ে রয়েছেন ইন্দ্রপ্রস্থের শর্মা পরিবার। রয়েছেন মা, বাবা, বড় দিদি ঐশ্বর্য শর্মা (Aishwarya Sharma), সন্তানসম দুই সারমেয় এবং অভিন্নহৃদয় বন্ধু ও প্রেমিক সব্যসাচী চৌধুরী (Sabyasachi Chowdhury)। গত সাত বছর ধরে ইউয়িং সারকোমা নামক বিরল ধরনের ক্যান্সারের সাথে লড়াই করছিলেন ঐন্দ্রিলা। পরপর দুইবার অস্ত্রোপচার হয় তাঁর। চলেছিল কেমোথেরাপি ও রেডিয়েশন। সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন তিনি। কিন্তু মারণরোগ আবারও ফিরে এসেছিল তাঁর শরীরে। মস্তিষ্কের কোষে ঘটেছিল ক্যান্সারের সংক্রমণ। হৃদরোগ তা জটিল করে দিয়েছিল। চিকিৎসকদের সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে চলে গিয়েছেন ঐন্দ্রিলা।

তাঁর দিদি ঐশ্বর্য পেশায় চিকিৎসক। চিকিৎসক হওয়ার সুবাদে হয়তো জানতেন ইউয়িং সারকোমার পরিণতি। কিন্তু মন মানেনি। নিজের হাতে শেষবারের মতো সাজিয়ে দিয়েছিলেন ছোট বোন মিষ্টিকে। ঐন্দ্রিলাকে এই নামেই ডাকতেন পরিবারের সদস্যরা। বুক ফেটে গিয়েছিল। কিন্তু তবু অনড় হয়ে পালন করেছেন সব দায়িত্ব। সম্প্রতি ঐন্দ্রিলার ইউটিউব চ্যানেলকে নতুন করে সাজিয়ে তোলার কথাও ঘোষণা করেছেন ঐশ্বর্য। কিন্তু এই প্রথমবার রক্ষাবন্ধন উৎসবে নেই তাঁর ছোট বোন। চলতি বছরের অগস্ট মাসের 30 ও 31 তারিখ দেশ জুড়ে পালিত হচ্ছে রাখী।

রাখী উৎসবের দিন ছোট বোনের স্মৃতির উদ্দেশ্যে ইন্সটাগ্রামে একটি পুরানো পোস্ট শেয়ার করেছেন ঐশ্বর্য। পোস্টের ব্যাকগ্রাউন্ড তাঁর মনের কথাই উঠে এসেছে গানের সুরে ‘সজনা, বরষে হ্যায় কিঁউ আঁখিয়াঁ’। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বর্ষণমুখর প্রকৃতির সৌন্দর্য চুপচাপ বারান্দায় বসে উপভোগ করছেন ঐন্দ্রিলা। পরনে লাল রঙের স্লিপিং স্যুট ও মাথায় অফ হোয়াইট ব্যান্ড। ভিডিওর আরেকটি অংশে মেঘলা আকাশ ও সবুজ ঘাসের মাঝে হাসিমুখে দাঁড়িয়ে ঐন্দ্রিলা। পরনে সাদা রঙের প্রিন্টেড টি-শার্ট ও নীল রঙের হট প্যান্ট। ধীরে ধীরে জঙ্গলের মেঠো পথ দিয়ে একসময় হেঁটে যাচ্ছেন ঐন্দ্রিলা।

ভিডিওটি শেয়ার করে ঐশ্বর্য তাঁর বোনকে রাখির শুভেচ্ছা জানিয়ে লিখেছেন, প্রতিটি দিন তাঁর যেন ক্রমশ কঠিন হয়ে উঠছে। তিনি জানালেন, ছোট বোনকে ছাড়া বাঁচার কথা এখনও ভাবতে পারছেন না, খুব কষ্ট হচ্ছে।

কিছুদিন আগেই পশ্চিমবঙ্গ সরকার আয়োজিত ‘টেলি অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডস 2023’-র অনুষ্ঠানে ঐন্দ্রিলাকে সম্মানিত করা হয়েছে মরণোত্তর কৃতী সম্মানে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)-র হাত থেকে এই সম্মান গ্রহণ করেছেন ঐন্দ্রিলার মা-বাবা। মঞ্চেই ভেঙে পড়েছিলেন ঐন্দ্রিলার মা শিখা শর্মা (Shikha Sharma)। ভালো লাগেনি তাঁর এই সম্মান নিতে। কষ্ট পেয়েছেন শিখা দেবী। তবু জীবনকে মেনে নিতেই হয়। ঐন্দ্রিলার স্মৃতি নিয়ে পথ চলছেন শর্মা পরিবার ও সব্যসাচী।