Hoop NewsHoop Trending

Arpita Mukherjee: ফ্ল্যাটে উদ্ধার হয়েছিল ‘সেক্সটয়’, নিজেকে ‘উচ্চ বংশের মেয়ে’ বলে দাবি করলেন অর্পিতা

রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় গত আটমাস যাবৎ গরাদের আড়ালে রয়েছেন রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)। জেলে রয়েছেন তার একসময়ের ঘনিষ্ঠ বান্ধবী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ও (Arpita Mukherjee)। একাধিকবার আদালতে তাদের জামিনের আবেদন করা হলেও প্রত্যেকবার তার খারিজ করেছেন মহামহিম বিচারপতি। বরং তাদের জেরার পর একের পর এক রাঘব বোয়ালের সূত্র খুঁজে পেয়েছেন ইডির দুঁদে গোয়েন্দারা। তাদের মধ্যে অনেকেই এখন জেলের অন্ধকারে দিন কাটাচ্ছেন।

এর মাঝেই এই মামলার শুনানি ছিল গত মঙ্গলবার। সশরীরে আদালতে হাজির না হলেও ভার্চুয়ালি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সংশোধনাগার থেকে সরাসরি আদালতে হাজিরা দেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। আর এদিন তিনি নিজেকে নিয়ে গাইলেন সাফাই। নিজেকে আবারও ‘নির্দোষ’ বলে দাবি করলেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ এই বান্ধবী। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এবং প্রশাসনের উপর একরাশ ক্ষোভও উগরে দিলেন তিনি। আদালতে দাঁড়িয়েই আঙুল তুললেন বিচারব্যবস্থার দিকেও। নিজেকে আবারো অসহায় প্রমান করার চেষ্টা করলেন এই মহিলা।

মঙ্গলবার ব্যাংকশাল আদালতে দাঁড়িয়ে আবারো অর্পিতা দেবী বলেন, ‘আমি নির্দোষ’। এদিন তিনি এও বলেন, ‘আমাকে দীর্ঘ আট মাস ধরে জোর করে আটকে রাখা হয়েছে’। এর মাঝে তিনি নিজের মর্যাদাহানির অভিযোগও তোলেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ও প্রশাসনের বিরুদ্ধে। পাশাপাশি নিজের অবস্থান স্পষ্ট করতে অর্পিতা দেবী এদিন আদালতে মহামান্য বিচারপতির উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনার কি মনে হয় না, একজন মহিলাকে আটকে রেখে তাঁর সামাজিক স্টেটাস নষ্ট হচ্ছে?’ তিনি আরো বলেন, ‘আমি অত্যন্ত উচ্চ বংশের মেয়ে। আমার মা অসুস্থ। তাঁর পাশে থাকতে হবে।’

প্রসঙ্গত, গতবছর রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলার তদন্তের দায়ভার গ্রহণ করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডি (ED)। এর মধ্যে গত ২২ শে জুলাই তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রীর বাড়িতে হানা দেয় ইডি। সেখানে তাকে জেরার মাধ্যমে অর্পিতার সূত্র পায় তারা। অর্পিতার ফ্ল্যাটে হানা দিয়ে কোটি টাকার সন্ধান পান গোয়েন্দারা। সেই টাকা উদ্ধারের সঙ্গে সঙ্গে গ্রেপ্তার করা হয় তাকে। তারপর থেকে একাধিকবার জামিনের আবেদন করা হলেও প্রতিবার তা নাকচ করেছে আদালত।