Advertisements

Ditipriya Roy: ঘোমটা খুলে ছোট্ট রূপোলি ড্রেস, রূপের আগুনে কনকনে শীতেও উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন দিতিপ্রিয়া

Nirajana Nag

Nirajana Nag

Follow

সদ্য টেলিভিশনে আবারো ফেরানো হয়েছে ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’ সিরিয়ালটিকে। জি বাংলার সবথেকে জনপ্রিয় ধারাবাহিকের তালিকায় প্রথম দিকেই নাম থাকবে রাণী রাসমণির। ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লেখা এক মহিয়সী নারীর জীবনকাহিনি উঠে এসেছিল এই ধারাবাহিকে। সিরিয়ালটিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন দিতিপ্রিয়া রায় (Ditipriya Roy)। অনেক ছোট বেলায় অভিনয় জগতে পা রাখলেও রাণী রাসমণি তাঁকে খ্যাতির চূড়ায় তুলেছিল। দর্শকদের ঘরের মেয়ে হয়ে উঠেছিলেন দিতিপ্রিয়া।

প্রায় পাঁচ বছর ধরে সম্প্রচারিত হওয়া করুণাময়ী রাণী রাসমণি সিরিয়ালে অভিনয় করতে করতেই তরুণী থেকে যুবতী হয়ে ওঠেন দিতিপ্রিয়া। ধারাবাহিক থেকে বিদায় নেওয়ার পরে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। পেয়েছেন একের পর এক অফার। কাজ করেছেন হিন্দি সিনেমা, ওয়েব সিরিজে। বাংলা OTT তেও তাঁর অভিনয় মুগ্ধ করেছে দর্শকদের। এখন তিনি রীতিমতো একজন ‘লেডি’।

সোশ্যাল মিডিয়াতেও দিতিপ্রিয়ার জনপ্রিয়তা আকাশ ছোঁয়া। নিজের কাজের পাশাপাশি ব্যক্তিগত জীবনেরও টুকটাক আপডেট সেখানে শেয়ার করেন তিনি। ভাগ করে নেন ফটোশুটের ছবি, রিল ভিডিও। রাণী রাসমণির ইমেজ ছেড়ে বেরোতে বেশ কিছু বোল্ড ফটোশুটেও দেখা গিয়েছে দিতিপ্রিয়াকে। কখনো শর্টস, কখনো স্পোর্টস ব্রা পরে চোখ ধাঁধানো লুকে ধরা দিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি অভিনেত্রীর কিছু ছবি বেশ ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। লাল দেওয়ালের সামনে রূপোলি সিক্যুইনের র‍্যাপ ড্রেসে দেখা গিয়েছে তাঁকে। চোখে পড়ার মতো শর্ট পোশাকটি। কানে রূপোলি দুল, লম্বা চুল সুন্দর করে স্টাইল করা, মানানসই গ্ল্যাম মেকআপ। পায়ে পরেছেন সাদা ক্রকস। নেটিজেনরা চোখ ফেরাতে পারছেন না দিতিপ্রিয়ার দিক থেকে। লাল হৃদয় ইমোজিতে ভরে গিয়েছে কমেন্ট বক্স। টেলিভিশন ছেড়ে এখন বড়পর্দা এবং ওয়েব সিরিজ নিয়েই বেশি ব্যস্ত রয়েছেন দিতিপ্রিয়া। বেশ কিছু প্রোজেক্টে কাজ করে ফেলেছেন তিনি। অভিনয় করেছেন বলিউডেও। ভবিষ্যতের একজন সম্ভাবনা ময় অভিনেত্রী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করছেন দিতিপ্রিয়া। অনুরাগীর সংংখ্যাও দিন দিন বেড়ে চলেছে তাঁর।

Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখা...

Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow