whatsapp channel

Saif-Kareena: বিয়ের এত বছর পর আবার! বড় সুখবর দিলেন করিনা-সইফ

কিছুদিন আগেই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বলিউড অভিনেতা সইফ আলি খান (Saif Ali Khan)। গোটা দেশ যখন রাম মন্দির বন্দনায় ব্যস্ত ছিল, তখনই মুম্বইয়ের হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। হাঁটুর অস্ত্রোপচার করাতে…

Avatar

Nirajana Nag

কিছুদিন আগেই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বলিউড অভিনেতা সইফ আলি খান (Saif Ali Khan)। গোটা দেশ যখন রাম মন্দির বন্দনায় ব্যস্ত ছিল, তখনই মুম্বইয়ের হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। হাঁটুর অস্ত্রোপচার করাতে কোকিলাবেন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। দুদিন হাসপাতালে কাটিয়ে অবশেষে ছাড়া পেয়ে বাড়ি ফিরে এসেছেন সইফ। আর স্বামী ফিরতেই বড় সুখবর দিলেন করিনা কাপুর খান (Kareena Kapoor Khan)।

একসঙ্গে অনস্ক্রিনে বহুবার ধরা দিয়েছেন তাঁরা। কিন্তু তাঁদের অফস্ক্রিন জুটির মতো অনস্ক্রিন জুটি তেমন জমেনি। কুরবান, টশন, এজেন্ট বিনোদ এর মতো ছবিতে একসঙ্গে দেখা গিয়েছে তাঁদের। এবার শোনা যাচ্ছে, আবারো একসঙ্গে জুটি বাঁধতে চলেছেন সইফ করিনা। অভিনেত্রী নিজেই এ ব্যাপারে মুখ খুলেছেন।

করিনা সম্প্রতি বলেন, এতদিন একসঙ্গে জুটি বাঁধার তেমন সুযোগ তাঁরা পাননি। তবে সইফ নাকি বলতেন যে তাঁদের জুটিকে অনস্ক্রিনে মানুষ পছন্দ করে না। অবশেষে এতদিন পর একটি চিত্রনাট্য তাঁদের দুজনেরই পছন্দ হয়েছে। তাই আবারো তাঁরা জুটি বেঁধে ফেরার পরিকল্পনা করছেন বড়পর্দায়। তবে এখনো কিছু চূড়ান্ত হয়নি। কিছুদিন আগে হাঁটুতে গুরুতর চোট পেয়েছিলেন সইফ। অস্ত্রোপচার করাতে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিল তাঁকে। তবে এখন তিনি সুস্থ আছেন।

প্রসঙ্গত, করিনার আগেও একবার বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন সইফ। অনেক কম বয়সে নিজের থেকে বয়সে বড় অমৃতা সিংকে বিয়ে করেছিলেন তিনি। দুই সন্তান হয় তাঁদের, সারা আলি খান এবং ইব্রাহিম খান। তাঁরা দুজনেই এখন বড় হয়ে নিজ নিজ কেরিয়ারে মন দিয়েছেন। অন্য দিকে করিনারও আগে এক সম্পর্ক ছিল। অভিনেতা শাহিদ কাপুরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ প্রেম ছিল তাঁর। কিন্তু সইফ বা করিনার কারোরই সম্পর্ক টেকেনি। নিয়তিই তাঁদের মিলিয়ে দেয়। ‘টশন’ ছবির সেটে করিনা এবং সইফের প্রথম আলাপ এবং প্রেম। ২০১২ সালে বিয়ে করেন তাঁরা। দ্বিতীয় বিয়েতেও দুই সন্তান হয় সইফের, তৈমুর আলি খান এবং জাহাঙ্গীর আলি খান।

Avatar

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাঠকদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই