whatsapp channel

শাশুড়ির খোঁটা, স্বামীর কাছেও নেই সুখ, বাধ্য হয়ে প্রতিবেশীর কাছাকাছি এলেন মানালি!

বিয়ের পর নারীদের মধ্যে বন্ধুত্ব হওয়ার অর্থ প্রাচীন কাল থেকেই সমালোচিত হয় পরনিন্দা, পরচর্চা হিসাবে। বাহিরমহলের ধারণা, অন্দরমহলে চলে শুধুমাত্র কূটকাচালী। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে, বিবাহিত নারীদের মধ্যে বন্ধুত্ব হলে তাঁদের অন্তর্দাহ…

Avatar

Nilanjana Pande

বিয়ের পর নারীদের মধ্যে বন্ধুত্ব হওয়ার অর্থ প্রাচীন কাল থেকেই সমালোচিত হয় পরনিন্দা, পরচর্চা হিসাবে। বাহিরমহলের ধারণা, অন্দরমহলে চলে শুধুমাত্র কূটকাচালী। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে, বিবাহিত নারীদের মধ্যে বন্ধুত্ব হলে তাঁদের অন্তর্দাহ অনেকটাই লাঘব হয়। বিয়ের পর শিমুল শ্বশুরবাড়িতে পা দিতে না দিতেই তার ত্বকের রং নিয়ে শুরু হয় সমালোচনা। শিমুল নাকি তার ছবির মতো ফর্সা নয়। তার সাধের হারমোনিয়ামের স্থান হয় গুদামঘরে। গানের শংসাপত্রগুলি বন্দি হয়ে যায় আলমারিতে শাড়ির আড়ালে। গ্যাস ওভেনে দুধ চাপিয়ে রান্নাঘর ছাড়ার বেখেয়াল শিমুলের শাশুড়ির কাছে গুরুতর অপরাধ। শিমুলের শিক্ষক স্বামী ব্যস্ত তার স্কুলের খাতা নিয়ে।

শিল্পীর সত্ত্বা অনেক আগেই পুড়ে গিয়েছিল সাতপাকের আগুনে। এবার মনের কষ্টে শিমুল ছিঁড়ে ফেলে গানের শংসাপত্র। উড়িয়ে দেয় হাওয়ায়। কিন্তু ছাদ থেকে কাপড় তুলতে গিয়ে পাশের বাড়ির বৌদি তাকে চা খাওয়ার আমন্ত্রণ জানায়। আরও এক প্রতিবেশিনী বলে সে আসছে শিমুলের সাফল্যের উদযাপন করতে। পিছিয়ে থাকে না অবাঙালি প্রতিবেশিনীও। শিমুল অবাক হয়, তার আবার কিসের সফলতা! কিন্তু আরও বেশি অবাক হয়ে যায়, যখন দেখে পাড়ার প্রতিবেশিনীদের নিজের হাতে আঠা দিয়ে জুড়ে দেওয়া শিমুলের শংসাপত্র যাকে একটু আগেই ছিঁড়ে ফেলে দিয়েছিল সে। চা ও শিঙাড়া সহযোগে সকলে মিলে হয় সেলিব্রেশন। অনেকেই হয়তো এই কাহিনীর সাথে নিজেদের যুক্ত করতে পারছেন। আসলে শিমুলরা যে রয়েছে ঘরে ঘরে।

সেই শিমুলদের কাহিনী নিয়েই জি বাংলায় আসতে চলেছে এক নতুন ধারাবাহিক ‘কার কাছে কই মনের কথা’। শিমুলের চরিত্রে ছোট পর্দায় কামব্যাক করেছেন মানালি দে (Manali Dey)। রয়েছেন বাসবদত্তা চট্টোপাধ্যায় (Basabdutta Chatterjee), স্নেহা চট্টোপাধ্যায় (Sneha Chatterjee), কুয়াশা বিশ্বাস (Kuasha Biswas), সৃজনী মিত্র (Srijani Mitra)। পাঁচ নারীর একে অন্যের সহচরী হয়ে ওঠার কাহিনী নিয়ে আসতে চলেছে এই ধারাবাহিক।

বহুদিন পর আবার এই ধারাবাহিকের মাধ্যমে ছোট পর্দায় ফিরলেন ঋতা দত্ত চক্রবর্তী (Rita Dutta Chakraborty)। শিমুলের শাশুড়ির ভূমিকায় রয়েছেন তিনি। ধারাবাহিকের প্রোমো বলে দিচ্ছে, শিমুলের কাহিনী বাস্তবের মাটি থেকে উঠে আসা। ফলে দিনের শেষে মহিলারা মিল খুঁজে পাবেন ধারাবাহিকের চরিত্রদের সাথে। কিন্তু প্রশ্ন জাগে, শিমুলের শাশুড়িও কি শ্বশুরবাড়িতে বৌ হয়ে এসে একসময় মেরে ফেলেছিলেন নিজের স্বপ্নগুলিকে! এই প্রশ্নের উত্তর পেতে অপেক্ষা করতে হবে আর কিছুদিন। খুব শীঘ্রই জি বাংলায় অন এয়ার হতে চলেছে ‘কার কাছে কই মনের কথা’।