Bengali SerialHoop PlusHoop Video

Neha Amandeep: মানসিক অবসাদে থাকতেন ঘরবন্দি, অভিনেত্রী নেহার কাহিনী চোখে জল আনবে

একসময় ‘জি বাংলা'(Zee Bangla) র বিখ্যাত সিরিয়াল ‘স্ত্রী'(Stree)-তে নায়িকা ‘নিরুপমা’র চরিত্রে অভিনয় করতেন। অভিনয় দিয়েই বাঙালি মহিলামহলের ‘ইমোশন’ হয়ে উঠেছিলেন অভিনেত্রী অমনদীপ সোনকার। তবে বাঙালি তাকে চিনত নেহা অমনদীপ (Neha Amandeep)নামেই। কিন্তু শেষবার ‘কনে বউ’ (Kone Bou) ধারাবাহিক শেষ করে কোথায় হারিয়ে গিয়েছিলেন নেহা? ব্যক্তিগত অজ্ঞাতবাস নাকি অন্য গল্প? ‘দিদি নং ওয়ান'(Didi No. 1)-এর মঞ্চে এসে সেই অজ্ঞাতবাসের গল্পই শোনালেন অভিনেত্রী নেহা অমনদীপ।

শেষবার টিভি পর্দায় নেহাকে দেখা গিয়েছিল ২০২০ সালে। তারপর ইন্ডাস্ট্রি থেকে একদম গায়েব হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। বন্ধ ছিল সোশ্যাল মিডিয়ার যোগাযোগও। ফোন করেও উত্তর পাননি কেউ। যেন আচমকা অজ্ঞাতবাস নিয়ে নিয়েছিলেন নেহা। তবে শুক্রবার ফের টিভি পর্দায় দেখা গেল নেহাকে। এসেছিলেন ‘দিদি নং ওয়ান’-এর মঞ্চে। আর এই মঞ্চে রচনা ব্যানার্জির (Rachana Banerjee) সামনেই বললেন তার গত দু’বছরের কঠিন সময়ের কথা। নেহা বলেন, “বয়স কম হওয়ার কারণে কিছু কথা শুনে আমি ইন্ডাস্ট্রি ছেড়ে দিলাম। কেন ছাড়লাম তা নিজেও ঠিকভাবে জানি না। আমার মনে হত আমার মাথার মধ্যে কোনও তৃতীয় ব্যক্তি কথা বলছে। সে বলত, তুমি এই পৃথিবীর সবচেয়ে খারাপ মানুষ। তোমাকে বিচ্ছিরি দেখতে, তোমাকে কেউ আপন করে নেবে না। তোমার মরে যাওয়া উচিত… আমার এই সব মনে হত’। জীবনের গল্প বলতে বলতে চোখ ভিজে যায় অভিনেত্রীর। তিনি আরো বলেন, “আমি ভয় পেতাম লোকজনের সঙ্গে কথা বলতে। আমি রুমের বাইরে বার হতে পারতাম না। কাজের ব্যাপারে কেউ ফোন করলে ফোন ধরতাম না… ডিপ্রেশন শব্দটা সেই বুঝতে পারে যে সেটার মধ্যে দিয়ে যায়।”

তবে তার প্রত্যাবর্তনের গল্পটা শুরু হয় দুর্গাপূজায়, এমনটাই জানান অভিনেত্রী নেহা। নেহা জানান, “ঠাকুরই আমাকে বাঁচিয়েছে, হয়ত উনি চান না আমি মরে যাই’। নেহার এই গল্প শুনে রচনাও তাকে আশ্বস্ত করে বলেন, “তুমি নিজের জীবনে কিন্তু উইনার। তোমাকে ভাবতে হবে আমার জীবনে যে পার্টটা পেরিয়ে এসেছো সেটা আর কেউ পারেনি”।

এদিন ‘দিদি নং ওয়ান’-এর মঞ্চে খেলতে গিয়ে ফের চোট পান নেহা। আঘাত নিয়ে মাঝপথেই মঞ্চ ছেড়ে বেরিয়ে যেতে হয় তাকে। সূত্রের খবর, কাঁধে চোট পেয়েছেন নেহা, চিকিৎসা চলছে।