Advertisements

Sudipa Chatterjee: মাত্র ৫ বছরের ছেলেকে প্রাণনাশের হুমকি, আদিদেবকে স্কুলে পাঠাতে পারছেন না সুদীপা

Nirajana Nag

Nirajana Nag

Follow

কোনো না কোনো কারণে প্রায় সময়ই সংবাদ শিরোনামে থাকেন সুদীপা চট্টোপাধ্যায় (Sudipa Chatterjee)। এমনিতে তিনি নিজের রন্ধনশৈলীর জন্যই জনপ্রিয়। কিন্তু ইদানিং বিভিন্ন বিতর্কে জড়িয়ে তুমুল সমালোচনার মধ্যে পড়তে হচ্ছে সুদীপাকে। কিছুদিন আগেই বাংলাদেশে একটি রান্নার শো তে গোমাংস রান্নার রেসিপি শিখে চরম নিন্দার সম্মুখীন হন সুদীপা। রীতিমতো খুন, ধর্ষণের হুমকি পাওয়ার অভিযোগ করেন তিনি। হাতজোড় করে ক্ষমাও চেয়েছিলেন সুদীপা। কিন্তু বন্ধ হয়নি হুমকি।

সোশ্যাল মিডিয়া উত্তাল হয়েছে সুদীপার বিরুদ্ধে। এমনকি তাঁকে দেশে বয়কট করার হুমকিও দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, সুদীপার ছোট্ট ছেলে আদিদেবকে উদ্দেশ্য করেও এসেছে প্রাণনাশের হুমকি। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সুদীপা বলেন, সবকিছু ভুলে গিয়ে তিনি ঠিক থাকার চেষ্টা করছেন। কিন্তু হুমকির আতঙ্কের কারণে ছেলেকে এখনো স্কুলে পাঠাতে পারছেন না তিনি। সুদীপা এও জানান, পুলিশ নিরাপত্তা দেওয়ার চেষ্টা করছে। তবে এই ঘটনার জের যে এত দূর হবে তা তিনি ভাবতেও পারেননি বলে জানান সুদীপা।

সংবাদ মাধ্যমের কাছে সুদীপা বলেছিলেন, যারা তাঁকে আক্রমণ করছেন, ট্রোল করছেন তাদের মধ্যে অধিকাংশ মানুষই ভিডিওটি পুরোটা দেখেননি বলে নিশ্চিত তিনি। সুদীপার দাবি, তিনি গোমাংস রান্না করা বা খাওয়া তো দূরস্ত, ছোঁননি পর্যন্ত। এখনো ভিডিওগুলি অপরিবর্তিত অবস্থায় রয়েছে। যে কেউ দেখতে পারে বলে মন্তব্য করেন সুদীপা।

তবে সুদীপা হাতজোড় করে ক্ষমা প্রার্থনাও করেন। তিনি বলেছিলেন, নিশ্চয়ই এর জন্য কারোর কারোর খারাপ লেগেছে। তাদের আবেগে আঘাত দেওয়ার জন্য তিনি ক্ষমাপ্রার্থী। তাঁর মাথায় আসেনি যে এমনটা হতে পারে। ভবিষ্যতে আরো সতর্ক থাকবেন তিনি। সুদীপা আরো বলেন, ওই শোয়ের হোস্ট তারিণ ভুল করে বলে ফেলেছিলেন যে, তাঁকে গোমাংস রান্না করে খাওয়াবেন। তারপরেই তিনি সঙ্গে সঙ্গে নিজেকে সংশোধন করে নিয়েছিলেন। সুদীপা বলেন, সঞ্চালকের এমন ভুল এডিটররা বাদ দিয়ে দেন। কিন্তু কোনো কারণে ভুলবশত সেটা হয়নি। এই ভুলের দায় তো তাঁর নয়। তবে সুদীপার কোনো কথা শুনতেই রাজি নন নেটিজেনরা।

Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখা...

Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow