Advertisements

Sujata Mondal: কার সঙ্গে দোল খেলে গোটা বাথরুম আবিরে রাঙিয়েছেন সুজাতা মন্ডল!

Debaprasad Mukherjee

Debaprasad Mukherjee

Follow

বাংলার রাজনৈতিক মহলে এক গুরুত্বপূর্ণ জুটি সৌমিত্র-সুজাতা। রাজনীতি থেকে দাম্পত্য, সেখানে একে অপরের হয়ে লড়াই, তারপর রাজনৈতিক বিভেদ, সেখান থেকে বিচ্ছেদ- তাদের জীবনের এই গ্রাফের নানা পর্যায় তাদের শিরোনামে রাখে। তবে এখন আবার সুজাতার (Sujata Mondal) জীবনের গ্রাফ নিয়েছে ‘টার্নিং পয়েন্ট’। সৌমিত্রকে অতীত ভেবে নতুন মানুষের সঙ্গলাভের ইঙ্গিত দিয়েছেন স্পষ্টভাবেই। আর এবার সেই নতুন মানুষের সঙ্গে দোলের রঙে কি ভেসে গেলেন সুজাতা দেবী? একাকীত্বের বসন্ত উৎসব কেমন কাটালেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ (Soumitra Khan)? এই প্রতিবেদনে রইল সেসব কথা।

নতুন মানুষের সঙ্গে প্রথম দোল খেলতে চান তৃণমূল নেত্রী সুজাতা মন্ডল। রঙের জোয়ারে ভেসে এই নতুন বসন্ত দিবস তিনি সেই কাছের মানুষকে দিতে চান বলেই জানিয়েছেন তিনি। আর এই অভিজ্ঞতার কথাও তিনি নাকি ভাগ করে নেবেন সবার সঙ্গে। তিনি বলেন, “জীবনে বসন্ত থাকলে দোল খেলার লোকের অভাব হয় না। আমার দোল কয়েকদিন আগে থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে। আমি শুধু দোলে রঙিন হওয়ার কথা ভাবি না। আমি জীবনে রঙিন হওয়ার কথা ভাবি। আমি রঙিন মানুষ। জীবন কখনও বেরঙিন হতে দিই না।”

তবে হবু স্বামীর বিষয়ে এখনই তিনি মুখ খুলতে নারাজ। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “শীঘ্রই ওকে সকলের সামনে নিয়ে আসব। এখনই কিছু বলব না।” এদিকে সুজাতা দেবীর জীবনে অতীত হয়ে যাওয়া বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ এই উৎসব কাটালেন অন্যভাবে। এদিন তিনি নিজের এলাকাতেই ছিলেন। বিষ্ণুপুরবাসীর সঙ্গে কাটালেন দিনটি। এদিন সকাল সাতটা থেকে তিনি বিষ্ণুপুরেই দোল খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। উল্লেখ্য, এর আগের একটি দোলের দিনের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিয়ে সুজাতা দেবী বলেছিলেন, “২০১৮ সালে আমরা দোল খেলেছিলাম বিষ্ণুপুরে। গোটা বাথরুম আবিরে রেঙেছিল। মনে হচ্ছিল এর অন্য ডিজাইন তৈরি হয়ে গিয়েছে।”

প্রসঙ্গত, বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ ২০১৬ সালে ১ জুলাই সুজাতা মন্ডলকে বিয়ে করেন। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী সৌমিত্রকে জেতানোর মূল কারিগর ছিলেন তাঁর স্ত্রী সুজাতা। পরে ২০২০ র ডিসেম্বরে তৃনমূলে যোগ দেন সুজাতা। ওইদিনই সংবাদমাধ্যমে সুজাতার সাথে সম্পর্ক ত্যাগ করার কথা জানান সৌমিত্র। এরপরই আদালতের দ্বারস্থ হয়ে পাকাপাকিভাবে আলাদা হন তারা।

Debaprasad Mukherjee

Hoophaap-এর সম্পাদক দেবপ্রসাদ বিগত কয়েক বছর যাবৎ সাংবাদিকতার সঙ্গে যুক্ত। ডিজিটাল মিডিয়ার হাত ধরে...

Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow