Advertisements

ভুলে যাবেন OYO, নামমাত্র খরচে থাকা খাওয়ার দারুণ ব্যবস্থা সল্টলেকের এই সরকারি গেস্ট হাউসে

Nirajana Nag

Nirajana Nag

Follow

কলকাতা মানেই হাজারো মানুষের সমাগম। প্রতিদিন বহু মানুষ আসেন এই শহরে। কেউ কেউ আসেন পড়াশোনার জন্য, কেউ পরীক্ষা দিতে, কেউ আসেন চিকিৎসার জন্য, কেউ কর্মসূত্রে, আবার কেউ নিছক শহরটা ঘুরে দেখতে। কলকাতা ফেরায় না কাউকেই। কম খরচে থাকা খাওয়ার জন্য এই শহরের বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। যারা বাইরের শহর বা রাজ্য থেকে কলকাতায় আসেন তারা এই শহরের বুকেই পেয়ে যাবেন বিভিন্ন মানের হোটেল, হলিডে হোম।

সরকারি গেস্ট হাউসের সুবিধা

তেমনি আবার সরকারি গেস্ট হাউসও (Government Guest House) অনেক রয়েছে শহরে। এখানে পকেটের চিন্তা না করেই কয়েক দিন থাকতে পারবেন। সঙ্গে থাকবে কম দামে খাওয়া দাওয়ার বন্দোবস্তও। মূলত সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মীদের থাকা খাওয়ার জন্যই এই গেস্ট হাউসগুলি ব্যবস্থা থাকে। তবে শুধু সরকারি কর্মীরাই নয়, যে কেউই চাইলে এই গেস্ট হাউসগুলির রুম বুক করতে পারেন। এই সরকারি গেস্ট হাউস গুলি যেমন নিরাপদ, তেমনি এখানে রয়েছে খাওয়া দাওয়ার সুব্যবস্থাও। অনলাইনে সার্চ করে যাবতীয় তথ্য নিয়েই এই গেস্ট হাউসগুলি বুক করা যায়। এই প্রতিবেদনে খোঁজ রইল এমনি কিছু সরকারি গেস্ট হাউসের।

উদয়াচল ট্যুরিজম প্রপার্টি

পর্যটন দফতরের তরফে সল্টলেক, সেক্টর ২, ডিজি ব্লকে তৈরি করা হয়েছে এই গেস্ট হাউস। এখানে প্রতিদিন মাথাপিছু খরচ পড়বে ১৯০০ টাকা। এই ভাড়ার মধ্যে রয়েছে থাকার সঙ্গে খাওয়ার খরচও। সংস্থার অফিশিয়াল গুগল অ্যাকাউন্টে বুকিং করার ফোন নম্বর এবং ইমেল আইডি দেওয়া রয়েছে।

নলবন ফুড পার্ক

মৎস্য দফতরের তরফে সল্টলেক সেক্টর ৪ এ তৈরি করা হয়েছে এই গেস্ট হাউসটি। ১ রাতের জন্য এখানে থাকা এবং খাওয়ার খরচ পড়বে ২৫০০ টাকা। এসি এবং নন এসি দুই রকম রুমই এখানে উপলব্ধ রয়েছে। পাশাপাশি রুম গুলিতে সিঙ্গেল বেড, ডবল বেড, শিশু উদ্যান, ফ্রি পার্কিং জোন, কনফারেন্স রুমের সুবিধা রয়েছে।

Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখা...

Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow