whatsapp channel

এই খাবারেই চনমনে হবে যৌবন, রইল সুস্বাদু শাকের সহজ রেসিপি

যৌবন (Youth) ধরে রাখতে কে না চায়! কিন্তু বর্তমান জীবনযাত্রায় অকালেই প্রৌঢ়ত্ব থাবা বসাচ্ছে মানুষের জীবনে। শরীরে হরেক রোগ বাসা বাঁধছে, স্বাস্থ্যের অবনতি হচ্ছে অনেকেরই। রুটিন বদলে যাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে…

Avatar

Nirajana Nag

যৌবন (Youth) ধরে রাখতে কে না চায়! কিন্তু বর্তমান জীবনযাত্রায় অকালেই প্রৌঢ়ত্ব থাবা বসাচ্ছে মানুষের জীবনে। শরীরে হরেক রোগ বাসা বাঁধছে, স্বাস্থ্যের অবনতি হচ্ছে অনেকেরই। রুটিন বদলে যাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে স্বাস্থ্য। ঘুমের পরিমাণ কমছে মানুষের, কাজের চাপ বাড়ায় স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়াও হয়ে ওঠে না অনেক সময়। বাইরের অস্বাস্থ্যকর খাবার বেশি খাওয়া হয়ে যায়। আর স্বাস্থ্য খারাপ হলে তার ছাপ পড়ে যৌবনেও। তাই সময় থাকতেই ডায়েটে এমন খাবার যোগ করা উচিত যাতে বয়স বাড়লেও শক্তি বজায় থাকবে।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, শরীর ভালো রাখতে আর যৌবন ধরে রাখতে বেশি করে সবুজ শাক সবজি খাওয়া উচিত। শাক সবজি পছন্দ করেন অনেকেই। গ্রাম বাংলায় বহু ধরণের শাকই পাওয়া যায়। বিভিন্ন মরশুমে পাতে শাকের ধরণও বদলাতে থাকে। পালং শাক, পুঁই শাক, নটে শাক, কলমি শাকের মতো বহু চেনা অচেনা শাক খাওয়া হয়ে থাকে। এই সমস্ত শাকের গুণাগুণও রয়েছে প্রচুর। বিশেষ করে বাঙালির প্রিয় পুঁই শাকের রয়েছে প্রচুর গুণ।

পুঁই শাক দিয়ে অনেক রকম পদই রান্না করা যায়, যার মধ্যে অন্যতম হল পুঁই পোস্ত। হ্যাঁ, পোস্ত দিয়েও রাঁধা যায় পুঁই শাক। কীভাবে রাঁধবেন, কী কী উপকরণই বা লাগবে, পুরো রেসিপি রইল এই প্রতিবেদনে। এই রান্নার জন্য লাগবে পুঁই শাক, আলু, সর্ষে, পোস্ত, শুকনো লঙ্কা, জিরে, হলুদ গুঁড়ো, তেজপাতা, পাঁচফোড়ন, নুন, চিনি আর সর্ষের তেল। প্রথমেই পুঁই শাক আর আলু ধুয়ে ছোট করে কেটে নিতে হবে। অন্যদিকে বেটে রাখতে হবে সর্ষে, পোস্ত, জিরে আর শুকনো লঙ্কা।

কড়াইতে সর্ষের তেল গরম করে দিতে হবে তেজপাতা আর পাঁচফোড়ন। তার মধ্যে পুঁই শাক আর আলু দিয়ে ভাজতে হবে। ভাজা ভাজা হলে তার মধ্যে দিতে হবে হলুদ গুঁড়ো আর আগে থেকে বেটে রাখা মশলা। সব দিয়ে ভালো করে কষাতে হবে। এর মধ্যে মেশান সামান্য জল। তারপর স্বাদ মতো নুন আর চিনি দিয়ে কিছুক্ষণ নাড়িয়ে নিয়ে নামিয়ে নিতে হবে। গরম ভাতে প্রথম পাতে জমে যাবে পুঁই পোস্ত।

Avatar

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাঠকদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই