Hoop Life

Skin Care Tips: কাঁচের মতো ঝকঝকে ত্বক পেতে সাহায্য করবে ঘরোয়া উপাদান, জেনে নিন ব্যবহারের পদ্ধতি

সুন্দর থাকার জন্য স্ক্রাবিং বা এক্সক্লিউশন খুব জরুরি। আমাদের ত্বকের ঠিকঠাক মতন যদি স্ক্রাবিং না হয়, তাহলে ত্বকের মধ্যে থাকে নানান ধরনের ময়লা নানান সমস্যা হতে পারে। এই সমস্যা থেকে যদি মুক্তি পেতে চান, তাহলে অবশ্যই সঠিক উপায় স্ক্রাবিং করুন। স্কিনকে ভালো করে এক্সফলিয়েট করতে হবে। প্রথমে জেনে নিন কিভাবে স্কিনকে স্ক্রাবিং করবেন এবং কোন কোন ঘরোয়া উপাদান ব্যবহার করবেন। Hoophaap এর পাতায় দেখে নিন অসাধারণ টিপস –

১) চালের গুঁড়ো- চালের গুঁড়ো স্ক্রাবার হিসাবে অত্যন্ত উপযুক্ত। একটি উপাদান আদিম যুগ থেকেই যে সময় এত দামি দামি ক্রিম ছিলনা। সেই সময় থেকে চালের গুঁড়োকে রূপচর্চার কাজে ব্যবহার করা হয়। চালের গুঁড়ো আর কাঁচা দুধ পরিমাণ মতন ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। স্নান করার আগে ভালো করে গা-মুখ জল দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। তারপর ভিজে গায়ে এই মিশ্রণটি খুব ভালো করে স্ক্রাব করতে হবে।

২) কফি পাউডার – কফি পাউডারের সঙ্গে দুধ ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে মিশ্রণটি যদি মুখে, ঘাড়ে, কাঁধে, গলায়, পিঠে ভালো করে লাগাতে পারেন, এটিও অসাধারণ স্ক্রাবার হিসেবে কাজ করে।

৩) সুজি – সুজিকে সামান্য মিক্সিতে গুঁড়ো করে নিন। তারপর এর সঙ্গে দুধ ভালো করে মিশিয়ে মিশ্রণটি ভালো করে মুখে লাগান।

৪) বাসি রুটি, কাঁচা দুধ – বাসি রুটি গরম দুধের কিছুক্ষণ ফেলে রাখুন। তারপরে হাত দিয়ে ভালো করে চটকে নেবেন। মিশ্রণটি যদি খুব ভালো করে ধীরে ধীরে আস্তে আস্তে আপনি আপনার ত্বকের উপর ম্যাসাজ করতে পারেন, তাহলে কোনো রকম ক্ষতি না হয়, এটি আপনার জন্য অত্যন্ত ভালো একটি স্ক্রাবার।

৫) পাতিলেবু, চিনির স্ক্রাবার- পাতিলেবুর রসের সঙ্গে চিনি ভালো করে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটিও অসাধারণ স্ক্রাবার হিসেবে কাজ করে।

তবে অতিরিক্ত স্ক্রাব করলে স্কিনের ক্ষতি হতে পারে –

১) ত্বকে লালচে ভাব – ত্বকের যদি লালচে ভাব হয়, তাহলে বুঝতে পারবেন আপনি অতিরিক্ত স্ক্রাবিং করছেন, অতিরিক্ত স্ক্রাবিং করা একেবারেই ভালো নয়।

২) কিছুদিন স্ক্রাবিং বন্ধ করুন – পরপর স্ক্রাবার ব্যবহার করবেন না। সপ্তাহে দুদিন যথেষ্ট। তাও যদি মনে হয়, স্ক্রাবিং করতে ইচ্ছা করছে সেক্ষেত্রে স্ক্রাবারের সঙ্গে অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে দিতে পারেন। অ্যালোভেরা জেল ত্বককে সুন্দর এবং সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। সপ্তাহে অন্তত তিন দিন স্ক্রাবিং করে যথেষ্ট।

সতর্কীকরণ– উপরে উল্লেখিত কোনো উপাদানে অ্যালার্জি থাকলে ব্যবহারের আগে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া উচিত। এছাড়াও কোনো রকম সমস্যা এড়াতে আগে চিকিৎসকের সঙ্গে অবশ্যই কথা বলুন।