whatsapp channel

VIDEO: নীল ফিনফিনে শাড়িতে দুর্দান্ত নাচ, ‘ধক ধক’ গানে ঝড় তুলে দিলেন দুই সুন্দরী

বলিউডের বেশিরভাগ অভিনেত্রীরাই অভিনয়ের সঙ্গে সঙ্গে নাচেও দক্ষ। কেউ কেউ ক্লাসিকাল ডান্সে দক্ষতা অর্জন করেছেন। কেউ আবার শিখেছেন অন্য ঘরানার নাচ। তবে নতুন এবং পুরনো প্রজন্মের বেশিরভাগ অভিনেত্রীকেই চোখ বন্ধ…

Avatar

Nirajana Nag

বলিউডের বেশিরভাগ অভিনেত্রীরাই অভিনয়ের সঙ্গে সঙ্গে নাচেও দক্ষ। কেউ কেউ ক্লাসিকাল ডান্সে দক্ষতা অর্জন করেছেন। কেউ আবার শিখেছেন অন্য ঘরানার নাচ। তবে নতুন এবং পুরনো প্রজন্মের বেশিরভাগ অভিনেত্রীকেই চোখ বন্ধ করে যিনি নাচে হারাতে পারেন তিনি হলেন মাধুরী দীক্ষিত (Madhuri Dixit)। বলিউডের আশি-নব্বইয়ের দশকের এই অভিনেত্রীর নাচের ভক্ত আট থেকে আশি সকলেই। ক্লাসিকাল ডান্স থেকে শুরু করে বলিউডি গানে ঠুমকা, সবেতেই তিনি পারদর্শী।

‘বেটা’ ছবিতে ‘ধক ধক করলে লাগা’ গানে মাধুরীর অনবদ্য নাচ এক প্রজন্ম পেরিয়েও মানুষের মনে গেঁথে রয়েছে। এই গানটির জন্য আপামর সিনেপ্রেমীর কাছে ‘ধক ধক গার্ল’ নামে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন মাধুরী। তারপর অনেকগুলো বছর কেটে গেলেও মাধুরী এবং অনিল কাপুর অভিনীত গানটি যেমন জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছে সিনেমা প্রেমীদের মাঝে, তেমনি এই গানের সঙ্গে অনেকেই মাধুরীর মতো নাচার চেষ্টাও করেছেন।

সম্প্রতি আরো দুই যুবতীর ভিডিও (Viral Video) উঠে এসেছে আলোচনার কেন্দ্রে। ‘ধক ধক’ গানে দুর্দান্ত নেচে মাধুরীকেও টেক্কা দিয়েছেন তারা। ‘হেলি দারুওয়ালা’র ইউটিউব চ্যানেল থেকে শেয়ার করা হয়েছে ভিডিওটি। হেলি দারুওয়ালার সঙ্গে সঙ্গে প্রণীতাও নেচেছেন এই গানে। নীল রঙের শিফন শাড়ির সঙ্গে সোনালি ব্লাউজ পরে নাচতে দেখা গিয়েছে দুই সুন্দরী যুবতীকে। প্রত্যেক নাচের ভঙ্গিমায় তাঁদের আবেদন অপ্রতিরোধ্য। দুজনেই যে অসাধারণ নৃত্যশিল্পী সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। এঁরা দুজনে একসঙ্গে হতে ঝড় উঠেছে নেট পাড়ায়।

উল্লেখ্য, ভিডিওটি কিন্তু চার বছর আগে ইউটিউব চ্যানেলে শেয়ার করা হয়েছিল। তবে এখন হঠাৎ করেই আবার ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি। এখনো পর্যন্ত ৩১ হাজার মানুষের কাছে পৌঁছেছে দুই যুবতীর নাচের ভিডিও। তবে চর্চায় উঠে আসার পরে আরো বেশি ভিউ আসবে ভিডিওতে, এমনটাই মত নেটিজেনদের। দুজনকেই প্রশংসা, বাহবায় ভরিয়ে দিয়েছেন দর্শকরা। আর সেই সঙ্গে এমন ভিডিও আরো দেখার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তারা।

Avatar

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাঠকদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই