Advertisements

অভিনেতা নন, বড় হয়ে কি হতে চেয়েছিলেন শুভাশিস মুখোপাধ্যায়!

Avatar

Nilanjana Pande

Follow
Advertisements

কয়েক বছর আগে বাংলা ফিল্ম ‘মহালয়া’-র মাধ্যমে কিংবদন্তী বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্র (Birendra Krishna Bhadra)-র চরিত্র নিপুণ দক্ষতায় ফুটিয়ে তুলেছিলেন শুভাশিস মুখোপাধ্যায় (Subhashish Mukherjee)। মঞ্চ, ছোট পর্দা ও বড় পর্দায় সমান সাবলীল তিনি। কিন্তু কমার্শিয়াল বাংলা ফিল্মে কমেডিয়ানের ছোট চরিত্র ছাড়া ইন্ডাস্ট্রি শুভাশিসের প্রতিভার সাথে ন্যায়বিচার করতে পারেনি। একসময় চেয়েছিলেন ক্রিকেটার হতে। কিন্তু অভিনয় জগৎ ছিল তাঁর ভাগ্যের ভবিষ্যৎ।

চতুর্থ শ্রেণীতে পড়াকালীন থিয়েটারের মঞ্চে অভিনয় করতে শুরু করেন শুভাশিস। পড়াশোনায় ভালো রেজাল্ট করলেও পছন্দের বিষয় ছিল ক্রিকেট। কিন্তু ধীরে ধীরে বড় হতে হতে বুঝতে পারেন পরিবারের আর্থিক সামর্থ্যের অভাব। ফলে ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্নকে অচিরেই বিসর্জন দিয়ে কলেজের পড়শোনা শেষ করে চাকরি করতে শুরু করেন শুভাশিস। তবে বাদ দেননি থিয়েটার। চাকরির পাশাপাশি অভিনয় চালিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। থিয়েটারের মাধ্যমেই আসে ছোট পর্দা ও তারপর বড় পর্দায় অভিনয়ের সুযোগ।

1986 সালে পূর্ণেন্দু পত্রী (Purnendu Patri) নির্মিত ‘ছোট বকুলপুরের যাত্রী’-র মাধ্যমে অভিনয়ে আত্মপ্রকাশ ঘটেছিল শুভাশিসের। কিন্তু তাঁকে পরিচিতি দিয়েছিল ‘বিবাহ অভিযান’। বিভূতিভূষণ মুখোপাধ্যায় (Bibhutibhushan Mukherjee)-এর বিখ্যাত উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত এই ধারাবাহিকে শুভাশিসের অসাধারণ অভিনয় দক্ষতা সকলের নজর কেড়েছিল।

একের পর এক বাংলা ধারাবাহিক ও টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন শুভাশিস। বড় পর্দায় ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’ সহ একাধিক কমার্শিয়াল ফিল্মে শুভাশিসকে অভিনয়ের সুযোগ দেওয়া হলেও তাঁর চরিত্রের গঠন কমেডি ধাঁচের ছিল। কিন্তু চিত্রনাট্যে শুভাশিসের চরিত্রের কোনো গুরুত্ব থাকত না। সব কৃতিত্ব নায়কের ঝুলিতেই চলে যেত। তবে কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায় (Kamaleswar Mukherjee) পরিচালিত ফিল্ম ‘মেঘে ঢাকা তারা’ আবিষ্কার করেছিল এক নতুন শুভাশিসকে। ফিল্মের নায়ক শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় (Saswata Chatterjee) হলেও আলাদা গুরুত্ব দেওয়া হয়েছিল শুভাশিসের চরিত্র গঠনে। দর্শকদের আবারও মুগ্ধ করেছিল তাঁর অভিনয় প্রতিভা। ‘মেঘে ঢাকা তারা’ ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন করে শুভাশিসের চাহিদা তৈরি করেছে।

তাঁর জীবনে মাইলস্টোন হয়ে গিয়েছে ‘মহালয়া’। বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রকে ধারণ করেছেন শুভাশিস। ভেঙে নতুন করে গড়ে তুলেছেন নিজেকে। বড় পর্দায় নিয়ে এসেছেন ‘মহালয়া’-র উজ্জ্বল প্রভাত। এই শুভাশিসই ‘ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মোটি’ ফিল্মে গোঁড়া পুরোহিত যিনি এক মহিলাকে অশালীন কটাক্ষ করতে ছাড়েন না। বারবার শুভাশিস প্রমাণ করেছেন নিজেকে। ভাঙা-গড়ার খেলায় ডুবে গিয়েছেন। কিন্তু তাঁর প্রাপ্তির ঝুলি এখনও ভরে দিতে পারেনি বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। কিন্তু দর্শকদের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন শুভাশিস। দিনের শেষে জিতে গিয়েছেন তিনি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Get Bengal (@getbengal)

Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow