BollywoodHoop Plus

Virat Kohli: বিরাট-অনুষ্কার দেহরক্ষী সোনুর বার্ষিক বেতন লজ্জায় ফেলবে বড় বড় কোম্পানির সিইওদের

সেলিব্রিটি হলে তাঁদের সুরক্ষিত রাখার প্রয়োজন তৈরি হয়। ইদানিং সেলিব্রিটিদের সুরক্ষিত রাখার স্বার্থে কয়েকটি সিকিউরিটি সংস্থা তৈরি হয়েছে যাদের কাছে রয়েছে শক্তিশালী বাউন্সার ও দায়বদ্ধ সিকিউরিটিদের যোগান। তবে এই সিকিউরিটি ও বাউন্সারদের বেতন আকর্ষক। এঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সোনু সিং (Sonu Singh) যাঁর পরিচয় বিরাট কোহলি (Virat Kohli) ও অনুষ্কা শর্মা (Anushka Sharma)-র বডিগার্ড হিসাবে। গত দুই বছর ধরে তাঁর বেতনের কারণে বারবার খবরের শিরোনাম দখল করেছেন সোনু।

সোনুর প্রকৃত নাম প্রকাশ (Prakash Singh)। অনুষ্কা ও বিরাট তাঁকে পরিবারের সদস্য মনে করেন। এর আগে ফিল্মের সেটে সোনুর জন্মদিন পালন করেছিলেন অনুষ্কা। জানা গিয়েছে, সোনু বছরে এক কোটি কুড়ি লক্ষ টাকা আয় করেন। অর্থাৎ প্রতি মাসে তাঁর বেতন দশ লক্ষ টাকা। তবে বিরাট ও অনুষ্কার বাৎসরিক আয়ের অঙ্কের কাছে সোনুর বেতন যথেষ্ট কম। ভারতীয় ক্রিকেটার বিরাট ও বলিউড তারকা অনুষ্কাকে মনে করা হয় ‘পাওয়ার কাপল’। ফলে সোনুর মত দেহরক্ষীদের প্রয়োজন পড়ে তাঁদের। কারণ অধিকাংশ স্থানে বিরাট ও অনুষ্কার মবড হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

নিজেদের ব্যক্তিগত জীবনকে নেটিজেনদের চোখের আড়ালে রাখতে পছন্দ করেন বিরাট ও অনুষ্কা। এমনকি তাঁরা তাঁদের একমাত্র কন্যাসন্তান ভামিকা (Vamika)-র মুখ এখনও নেটদুনিয়ায় আনতে দেননি। মিডিয়ার স্পটলাইট থেকে ভামিকাকে বাঁচাতে সোনুর বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। তবে এত নিরাপত্তা সত্ত্বেও একবার পাপারাৎজিদের ক্যামেরায় ধরা পড়েছিল ভামিকার মুখ এবং নিমেষে তা ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই সময় অনুষ্কা ও বিরাট আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বললে দ্রুত ভামিকার মুখ ব্লার করে দেওয়া হয় মিডিয়ার তরফে।

আপাতত অনুষ্কা ব্যস্ত তাঁর আগামী ফিল্ম ‘চাকদহ এক্সপ্রেস’-এর পোস্ট প্রোডাকশন নিয়ে। ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটার ঝুলন গোস্বামী (Jhulan Goswami)-র বায়োপিক এটি। এই ফিল্মের মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন অনুষ্কা।