Hoop PlusTollywood

Dipankar-Dolon: মায়ের তীব্র আপত্তি সত্ত্বেও কিভাবে দীপঙ্করকে জীবনসঙ্গী করলেন দোলন রায়!

বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে বরাবর চর্চিত দোলন রায় (Dolon Roy) ও দীপঙ্কর দে (Dipankar Dey)-র সম্পর্ক। অসমবয়সী এই সম্পর্কের ফলে উভয়কেই যথেষ্ট সমালোচিত হতে হয়েছে। 1997 সালে দীপঙ্করের সাথে যখন দোলনের সম্পর্কের সূত্রপাত ঘটে, সেই সময় দীপঙ্কর বিবাহিত। সব জেনেও আউটডোর শুটিংয়ে গিয়ে তৈরি হয়েছিল তাঁদের সম্পর্ক। চব্বিশ বছরের ব্যবধান নেহাত কম কথা নয়। অনেকেই বিদ্রুপ করে বলতেন, বাবা-মেয়ে। প্রথমে মেনে নেননি দোলনের মা।

1997 সালে ‘সংঘাত’ ফিল্মে অভিনয় করে জাতীয় পুরস্কার লাভ করেছিলেন দোলন। তবে তিনি আউটডোর শুটিংয়ে থাকার ফলে তাঁর মায়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল পুরস্কার। জি বাংলার জনপ্রিয় গেম শো ‘দিদি নং ওয়ান’-এর মঞ্চে এসে দোলন জানান, আউটডোর শুটিং থেকে ফেরার পর যখন তিনি মাকে তাঁর ও দীপঙ্করের সম্পর্কের ব্যাপারে বলেছিলেন, তাঁর মা মেনে নেননি। মেনে নেননি পরিবারের অন্য সদস্যরাও। কিন্তু অপেক্ষা করেছিলেন দোলন ও দীপঙ্কর। তবে বয়সে বড় হওয়ার কারণে দীপঙ্কর বরাবর দোলনকে আগলে রাখেন। কোথায় কি বলতে হবে, তিনিই বলে দিতেন দোলনকে।

দীর্ঘদিন সম্পর্কে ছিলেন তাঁরা। শোনা যায়, একসাথে লিভ-ইন করতেন দোলন ও দীপঙ্কর। তবে এর আগে তাঁরা গোপনে বিয়ে করেছিলেন বলে অনেকে মনে করেন। কারণ দোলন এতগুলি বছর ধরে সিঁথিতে সিঁদুর ও হাতে শাঁখা-পলা পরতেন। তবে এই সম্পর্ক আইনি স্বীকৃতি পায় 2020 সালে। পরিবারের সদস্য ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের উপস্থিতিতে রেজিস্ট্রি ম্যারেজ করেন দোলন ও দীপঙ্কর। তাঁদের বিয়ের ছবি ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

লাল শাড়িতে সেজেছিলেন দোলন। দীপঙ্কর পরেছিলেন সাদা রঙের ধুতি-পাঞ্জাবী। বর্তমানে দোলন বাংলা ধারাবাহিকে অভিনয় করলেও বয়সের কারণে করোনা অতিমারীর পর থেকে দীপঙ্কর আপাতত বেশি কাজ করছেন না।