Hoop Tech

বিনামূল্যে আর নয়, ফেসবুক চালাতে এবার মাসে মাসে গুনতে হবে টাকা

Advertisements

সোশ্যাল মিডিয়া (Social Media) কে না ব্যবহার করে? বিশেষ করে বর্তমানে প্রযুক্তি যত উন্নত হচ্ছে ততই মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে নানান সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম, যেগুলি মূলত মানুষের অবসর সময়ে বিনোদনের জন্য ব্যবহৃত হলেও এখন অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজেও ব্যবহার করা হয় সোশ্যাল মিডিয়া। অনেকেই আছে যারা বিভিন্ন কারণে অনেকটা সময়ে ফেসবুকে (Facebook) অতিবাহিত করেন। অতিরিক্ত বিজ্ঞাপনের ঠেলায় প্রায়ই বিরক্তি প্রকাশ করতে দেখা যায় তাদের। এবার তাই গ্রাহকদের জন্য এক নতুন সমাধান আনতে চলেছে মেটা।

ফেসবুক খুললেই আর অহেতুক বিজ্ঞাপন দেখার বাধ্যবাধকতা থাকবে না ব্যবহারকারীদের। এবার সাবস্ক্রিপশন চালু করতে চলেছে জুকারবার্গের সংস্থা মেটা। প্রিমিয়াম প্ল্যানে মাসে মাসে একটি নির্দিষ্ট অঙ্কের টাকা দিলেই আর বিজ্ঞাপন দেখতে হবে না ফেসবুকে। এর আগেই এমন প্ল্যান চালু রয়েছে ইউটিউব, অ্যামাজন এর মতো অ্যাপ গুলিতে। এবার ফেসবুকও হাঁটতে চলেছে সেই পথে।

বিনামূল্যে আর নয়, ফেসবুক চালাতে এবার মাসে মাসে গুনতে হবে টাকা

তবে বিজ্ঞাপন ছাড়া ফেসবুক ব্যবহার করতে মাসে কত টাকা গুনতে হবে? জানা যাচ্ছে, প্ল্যান অনুযায়ী প্রতি মাসে ১১৬৪ টাকা করে দিলেই আর বিজ্ঞাপনের ঝামেলা পোহাতে হবে না। তবে জানিয়ে রাখি, মোবাইলে যারা ফেসবুক ব্যবহার করেন তাদের ক্ষেত্রে টাকাটা একটু বেশিই পড়বে। কারণ প্লেস্টোরের খরচও এর মধ্যে যুক্ত থাকবে। তবে এখনি সমগ্র বিশ্বে এই ব্যবস্থা চালু হচ্ছে না। আপাতত ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের দেশগুলি অর্থাৎ ইতালি, জার্মানি, ফিনল্যান্ড, ডেনমার্ক, আয়ারল্যান্ড, ফ্রান্স, বেলজিয়ামে এই ব্যবস্থা চালু করতে চলেছে মেটা।

প্ল্যান অনুযায়ী, ডেস্কটপে ফেসবুক ব্যবহার করতে ১০ ইউরো দিতে হবে। আর মোবাইল সহ অন্যান্য ডিভাইসে ব্যবহার করতে হলে অতিরিক্ত ৬ ইউরো দিতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ব্যবহারকারীর সক্রিয়তা বুঝেই সেই অনুযায়ী বিজ্ঞাপন দেখানো হয়। তবে মেটার তরফে জানানো হয়েছে, সাবস্ক্রিপশন প্ল্যান চালু হলে বিজ্ঞাপন ব্যাপারটাই উঠে যাবে। আসলে বর্তমানে গোটা বিশ্বে বিজ্ঞাপন থেকে আয় অনেকটাই কমে গিয়েছে ফেসবুকের। তাই এইভাবেই ক্ষতির পরিমাণ পুষিয়ে নিতে চাইছে জুকারবার্গের সংস্থা মেটা।

Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাঠকদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই