BollywoodHoop Plus

Radhika Apte: বুকের মাপ নিয়ে কথা শুনতে হয়েছিল: রাধিকা আপ্তে

বলিউডের দেওয়ালে কম পাতলেই শোনা যায় নানা গল্প। যেসব গল্প খুব একটা সামনে এসে না। বিশেষ করে অভিনেত্রীদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া অনেক কুকর্মের কথা অজানাই থেকে যায় বছরের পর বছর। তবে কিছুদিন আগে ‘মি-টু’ মুভমেন্টের কারণে সামনে এসেছে অনেক অজানা কথা। কিভাবে ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখার সাথে সাথেই অভিনেত্রীদের উপর নানা কুকর্ম করতেন পরিচালক থেকে সিনিয়ররা, তা স্পষ্ট হয়েছে অনেকের কাছে। এবার নিজের জীবনে ঘটে যাওয়া এমনই কিছু ঘটনা ভক্তদের সঙ্গে ভাগ করে নিলেন অভিনেত্রী রাধিকা আপ্তে (Radhika Apte)।

বলিউডে বাণিজ্যিক ছবিতে নায়িকার চরিত্রে খুব কমই দেখা গেছে রাধিকা আপ্তেকে। তবে অনেক ‘এক্সপেরিমেন্টাল’ ছবিতে কাজ করেছেন অভিনেত্রী। কালজয়ী অভিনেতা ইরফান খানের বিপরীতে বেশ কিছু ছবিতে তার বাস্তবিক অভিনয় আজও মন জয় করে অনেকের। তবে ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখতেই শরীরের উপর নানা কিছু কাটাছেঁড়া করার প্রস্তাব পেয়েছিলেন অভিনেত্রী। তিনি নাকি এই অভিনয় জগতের জন্য মোটেও উপযুক্ত নন, এক সাক্ষাৎকারে কথা বলেছেন রাধিকা।

তিনি বলেন, ‘প্রথমেই আমাকে নাকে সার্জারি ও বোটক্স করতে বলা হয়েছিল। শুধু তাই-ই নয় স্তনেরও মাপ নিয়েও কথা শুনতে হয়েছিল আমাকে। এমনকি এই বিষয়ে আমাকে অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিয়েছিলেন একজন। বলা হয়েছিল, ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকতে হলে এগুলি করা বাঞ্ছনীয়।’ এই বিষয়ে অভিনেত্রী আরো বলেন, ‘আমায় বলা হল নাকে সার্জারি করতে। পরের মিটিংটায় গেলাম। আমায় স্তনের অস্ত্রোপচার করতে বলা হল। এসব চলতেই থাকল। কখনো পায়ে, কখনো চোয়ালে, কখনো গাল ভরাট করতে বলা হয়েছে। ৩০ বছর বয়সে এসে আমি চুলে রং করেছি। আমি এসবের জন্য একটা ইনজেকশনও নেবো না।’ কারণ এই বিষয়টি তার কোনোকালেই তেমন পছন্দের ছিল না। তাই শরীর পরিবর্তনে আগ্রহী হননি অভিনেত্রী।

অভিনেত্রী রাধিকা আপ্তে অভিনয় করেছেন হিন্দি,  বাংলা, মারাঠি, তেলুগু,  তামিল  এবং  মালায়মাম ভাষার চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। ২০০৯ সালে প্রথম ‘ঘো মালা আসলা হাভা’ নামে একটি মরাঠি কমেডি ফিল্মে সুযোগ পান। তারপর ‘শোর ইন দ্য সিটি’, ‘রক্তচরিত্র’, ‘আই অ্যাম’-এ অভিনয় করেন তিনি। এছাড়াও ‘অন্তহীন’, ‘মাঝি’, তাছাড়া তিনি সুজয় ঘোষ এর একটি ছোট ডকুমেন্টারী ‘অহল্যা’-তে অভিনয় করেন।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Radhika (@radhikaofficial)