Advertisements

মিটে গেল মান-অভিমান, মায়ের মৃত্যু মিলিয়ে দিল তন্বী-সৌমিতৃষাকে

Nirajana Nag

Nirajana Nag

Follow
Advertisements

বহুদিন পর হাসি ফুটল ‘মিঠাই’ ভক্তদের মুখে। দীর্ঘ অভিমান পর্ব মিটিয়ে ফের বন্ধুত্বের হাত বাড়ালেন সৌমিতৃষা কুণ্ডু (Soumitrisha Kundu) এবং তন্বী লাহা রায় (Tonni Laha Roy)। মিঠাই সিরিয়ালের সুবাদেই পরস্পরের সঙ্গে পরিচয় আর তারপর বন্ধুত্ব দুজনের। কিন্তু সেই গভীর বন্ধুত্বে ছেদ পড়ে মিঠাই শেষ হওয়ার পর। ‘প্রধান’ মুক্তির আগে নাম না করে তন্বীর কটাক্ষ পোস্টটি যে সৌমিতৃষার উদ্দেশেই ছিল তা বুঝতে বাকি থাকেনি কারোরই। এমনকি আদৃত কৌশাম্বীর বিয়েতে গোটা মিঠাই টিম আমন্ত্রিত থাকলেও আমন্ত্রণ পাননি সৌমিতৃষা। তাই এতদিন পর দুই প্রাক্তন সহকর্মীকে ফের স্বাভাবিক ভাবে দেখে খুশি সকলেই।

মিঠাই চলাকালীন সৌমিতৃষা এবং তন্বীর বন্ধুত্ব ছিল দেখার মতো। কিন্তু সিরিয়াল শেষের পরেই কাটে তাল। এমনকি সৌমিতৃষার প্রথম ছবি মুক্তির আগে নাম না করে তন্বী লিখেছিলেন, জনপ্রিয়তা পেয়েই তাঁকে আনফলো করে দেওয়া হয়েছে। কারোর নাম না করলেও নেটিজেনরা অনেকেই অনুমান করেছিলেন, কটাক্ষটা সৌমিতৃষাকেই করা হয়েছিল। পালটা সৌমিতৃষা বলেছিলেন, তিনি তো শাহরুখ খান নন যে কাকে ফলো করলেন, কাকে আনফলো করলেন তা নিয়ে ভাবতে হবে। কিন্তু কেন মিঠাই এর সহকর্মীদের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ল তা কখনও জানাননি অভিনেত্রী।

তবে আদৃত কৌশাম্বীর বিয়ের পরেই দুর্যোগ নেমে আসে তন্বীর জীবনে। নিজের মাকে হারান তিনি। সে সময় অবশ্য বন্ধুর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন সৌমিতৃষা। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, এ ক্ষতি পূরণ হওয়ার নয়। এমনটা যার সঙ্গে হয় সেই বোঝে। এমন সময়ে নিজের পুরনো সহকর্মী তথা বন্ধুর পাশে তিনি থাকবেন না এমনটা হতেই পারে না। তন্বীকে তিনি ফোন করেছিলেন বলে জানিয়েছিলেন সৌমিতৃষা।

আর এবার এতদিন পর তন্বীর ছবিতে কমেন্ট করলেন সৌমিতৃষা। সম্প্রতি একটি কালো লেহেঙ্গায় হাসিমুখে ছবি শেয়ার করেছিলেন তন্বী। সেখানেই কমেন্ট বক্সে হৃদয়ের চিহ্ন আঁকেন সৌমিতৃষা। পালটা কমেন্ট করেছেন তন্বীও। দুজনের আবার মিলন দেখে খুশি অনুরাগীরাও।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Tonni Laha Roy (@roytonni)

Nirajana Nag
Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখা...

Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow