whatsapp channel

Trina Saha: ক্লাস ইলেভেনে প্রথম প্রেম, নীল নয়, কার সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন তৃণা!

ক্যালেন্ডার বলছে ফাগুন আসতে চলেছে। আর সেই সঙ্গে আসছে প্রেমের দিনও। টেলিপাড়াতেও কান পাতলে শোনা যাচ্ছে প্রেমের ফিসফাস। সম্প্রতি নিজের প্রথম প্রেম নিয়ে মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী তৃণা সাহা (Trina Saha)।…

Avatar

Nirajana Nag

ক্যালেন্ডার বলছে ফাগুন আসতে চলেছে। আর সেই সঙ্গে আসছে প্রেমের দিনও। টেলিপাড়াতেও কান পাতলে শোনা যাচ্ছে প্রেমের ফিসফাস। সম্প্রতি নিজের প্রথম প্রেম নিয়ে মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী তৃণা সাহা (Trina Saha)। টেলিপাড়ার জনপ্রিয় অভিনেতা নীল ভট্টাচার্যের সঙ্গে তাঁর এক দশকেরও বেশি সময়ের প্রেম আর তারপর বিয়ে। কিন্তু জানলে অবাক হবেন, নীল কিন্তু তৃণার জীবনে প্রথম প্রেম নন। কেমন ছিল প্রথম ভালোলাগার সেই অনুভূতি?

তৃণা জানান, তাঁর প্রথম প্রেম ক্লাস ইলেভেনে। ঠিক ফাইনাল পরীক্ষার আগেই জড়িয়ে পড়েছিলেন এক সম্পর্কে। রেজাল্ট হয়েছিল তথৈবচ। অভিনেত্রী জানান, কার্যত ফেল করতে করতে বেঁচেছিলেন তিনি। ক্লাস টুয়েলভের পরীক্ষা শেষ হতেই মা ফোনটি নিয়ে ছুঁড়ে ফেলেছিলেন। সেই প্রথম প্রেমিকের থেকে প্রথম বার ভ্যালেন্টাইনস ডে-র উপহারও পেয়েছিলেন তৃণা। টিউশনের টাকা বাঁচিয়ে কেনা হার আর লকেট। তৃণা বলেন, টিউশন, টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে কেনা এই উপহার গুলি খুব স্পেশ্যাল হয়, মনেও থেকে যায়।

Trina Saha: ক্লাস ইলেভেনে প্রথম প্রেম, নীল নয়, কার সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন তৃণা!

প্রথম প্রেমপত্রের স্মৃতিও রয়ে গিয়েছে তৃণার মনে। তখন অভিনেত্রীর ক্লাস সেভেন। উত্তর কলকাতায় বনেদি পরিবারে বেড়ে ওঠা তাঁর। রাস্তা থেকে বারান্দায় ছুঁড়ে কাগজ দেওয়া হত। সেই কাগজের সঙ্গেই একবার এসেছিল প্রেমপত্র। পাঠিয়েছিল তৃণাদের সামনের বাড়ির একটি ছেলে। এদিকে বাবা মাকে বোঝাতে গিয়ে কাহিল হয়েছিলেন তৃণা যে তিনি প্রেম করেন না।

নীলও অবশ্য প্রেমপত্র দিয়েই প্রথম তৃণাকে প্রোপোজ করেছিলেন। দীর্ঘদিন ধরে সম্পর্কে ছিলেন দুজনে। ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে প্রেম করার পর বছর তিন আগে বিয়ে করেন দুজনে। গত ৪ ঠা ফেব্রুয়ারি দাম্পত্য জীবনের তিন বছর পূর্ণ করে ফেললেন তাঁরা। বিবাহবার্ষিকীতে দুজনেই পাড়ি দিয়েছেন শহর ছেড়ে দূরে। রায়চকে নিরালায় কাটাচ্ছেন এই বিশেষ দিন। সংবাদ মাধ্যমকে তৃণা জানিয়েছিলেন, দু দিনের ছুটি নিয়ে রায়চকে ঘুরতে গিয়েছেন তাঁরা। সবটাই নাকি নীলের সারপ্রাইজ। ঘুরতে আসার প্ল্যানিং থেকে শুরু করে বুকিং সবকিছুই করেছেন তিনি। দু দিনের ছুটি কাটিয়েই আবার কলকাতায় ফিরে কাজে যোগ দেন তাঁরা।

Avatar

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাঠকদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই