whatsapp channel

লোকসভা ভোটের মাঝেই বিরাট চমক, বিজেপিতে যোগ দিলেন খ্যাতনামা বাঙালি অভিনেত্রী

লোকসভা ভোট শুরু হওয়ার পরেও রাজনীতিতে যোগ দেওয়া বন্ধ নেই তারকাদের। বিগত কয়েক বছর ধরে রাজনৈতিক জগতে তারকাদের সংখ্যা বাড়ছে হু হু করে। বাংলা, হিন্দি দুই ইন্ডাস্ট্রি থেকেই অভিনেতা অভিনেত্রীরা…

Avatar

Nirajana Nag

লোকসভা ভোট শুরু হওয়ার পরেও রাজনীতিতে যোগ দেওয়া বন্ধ নেই তারকাদের। বিগত কয়েক বছর ধরে রাজনৈতিক জগতে তারকাদের সংখ্যা বাড়ছে হু হু করে। বাংলা, হিন্দি দুই ইন্ডাস্ট্রি থেকেই অভিনেতা অভিনেত্রীরা যোগ দিচ্ছেন রাজনীতিতে। এবার আরো এক বাঙালি অভিনেত্রী যুক্ত হলেন রাজনীতির সঙ্গে। তিনি অভিনেত্রী রূপালি গঙ্গোপাধ্যায় (Rupali Ganguly)। ‘অনুপমা’ সিরিয়ালে অভিনয় করে যিনি দর্শকদের মধ্যে ব্যাপক চর্চায় উঠে এসেছেন।

ইতিমধ্যেই দু দফায় ভোট হয়েছে দেশ জুড়ে। তৃতীয় দফা শুরু হওয়ার আগেই বড় চমক দিলেন রূপালি। বিজেপিতে যোগ দিলেন তিনি। এদিন বিজেপির জাতীয় সাধারণ সম্পাদক বিনোদ তাওড়ের হাত ধরে পদ্ম শিবিরে যুক্ত হন অভিনেত্রী। বিজেপির সদর দফতরে গিয়ে দলে যোগ দেন তিনি। এর আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছে রূপালির। গত মার্চ মাসে একটি অনুষ্ঠানে মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছিল তাঁর।

সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ছবি শেয়ার করেছিলেন রূপালি। লিখেছিলেন, ওই দিনটিই ছিল তাঁর জীবনের সবথেকে সেরা এবং স্মরণীয় দিন। এদিন বিজেপির সদর দফতরে বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নিয়ে রূপালি বলেন, উন্নয়নের মহাযজ্ঞ চলছে। আর এই মহাযজ্ঞ দেখে তাঁরও মনে হয়েছে এতে অংশ নেওয়া উচিত।

প্রসঙ্গত, টেলিভিশনের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী রূপালি গঙ্গোপাধ্যায়। সিনেমায় কাজ করলেও ছোটপর্দার দৌলতেই বেশি জনপ্রিয়তা তাঁর। মুম্বইতে জন্ম এবং বড় হয়ে উঠলেও আসলে বাঙালি রূপালি। দিব্যি ঝরঝরে বাংলাও বলতে পারেন তিনি। বাড়িতেই ফিল্মি পরিবেশ রয়েছে রূপালির। তাঁর বাবা অনিল গঙ্গোপাধ্যায় নির্দেশক এবং সংলাপ লেখক। বাবার ছবি ‘সাহেব’ এর হাত ধরেই রূপালির ফিল্মি কেরিয়ার শুরু হয়। তখন তাঁর বয়স মাত্র ৭ বছর। ‘সারাভাই ভার্সেস সারাভাই’তে মনীষা সারাভাই চরিত্রে অভিনয় করে প্রচুর খ্যাতি পেয়েছিলেন তিনি। এছাড়া বাংলার ‘শ্রীময়ী’র অনুকরণে হিন্দিতে ‘অনুপমা’ ধারাবাহিকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেও খ্যাতির চূড়ায় উঠেছেন রূপালি গঙ্গোপাধ্যায়।

Avatar

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাঠকদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই