Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow

 
Advertisements

Weather Update: বুধেই বেশ কিছু জায়গায় কালবৈশাখীর তাণ্ডব, কোন কোন জেলায় হবে দুর্যোগ!

Shreya Maitra Chatterjee

Shreya Maitra Chatterjee

Follow
Advertisements

ভীষণ গরমের হাত থেকে যেন পশ্চিমবঙ্গবাসীর একেবারেই কোন স্বস্তি নেই। বুধবার হতে না হতেই তীব্র গরমের তেজে চারিদিক একেবারে ছারখার হয়ে যাচ্ছে, কিন্তু চিন্তার কোন কারণ নেই আশার বাণী শোনাচ্ছে, আবহাওয়া দপ্তর তারা জানাচ্ছে, আগামী পাঁচদিন কলকাতার সহ দক্ষিণ বঙ্গের বিভিন্ন জায়গাতেই বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টির একটা সম্ভাবনা রয়েছে। রবিবার থেকেই ছিটে ফোঁটা বৃষ্টি হয়েছে, বিভিন্ন জেলাতে তবে অস্বস্তি কিন্তু এখনো রয়ে গিয়েছে গরমের প্যাচ প্যাচানি কষ্ট এখনো মানুষকে সত্যি বড্ড বিরক্ত করছে।

তবে আবহাওয়া দপ্তর থেকে জানাচ্ছে, বুধবার আগামী কয়েক দিনে দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জেলায় ছিটে ফোঁটা বৃষ্টি হতে পারে, তবে সঙ্গে বজ্রবিদ্যুৎ সহ ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ও আসতে পারে। জানা যাচ্ছে, বুধবার বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, পূর্ব বর্ধমান দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জায়গাতেই রয়েছে বৃষ্টির সতর্কতা। তবে ২৩ আর ২৪ তারিখ দক্ষিণ বঙ্গের বিভিন্ন জেলাতেই বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হবে।

সব খবর মোবাইলে পেতে 👉🏻

Join Now

২৫ তারিখ দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা উত্তর ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে বেশ ভালো ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, উত্তরবঙ্গেও বুধবার বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে দিনাজপুর আর মালদাহে রয়েছে কমলা সতর্কতা। তবে সপ্তাহের শেষে কিন্তু আবার একটা ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে কিন্তু সেই ঘূর্ণিঝড় বাংলায় কতটা প্রভাব ফেলবে সেই নিয়ে কিন্তু মানুষের মনের রীতিমতন একটা ভয় ধরা দিয়েছে। আবারো ঝড় নিয়ে রীতি মতন জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে, বাংলায়।

বাংলায় কি আবারও আছড়ে পড়তে পারে, ঘূর্ণিঝড়? তবে আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, আন্দামান সাগর দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর থেকে ক্রমশ উত্তর থেকে উত্তর পূর্ব দিকে অভিমুখে এগোতে পারে নিম্নচাপ। অভিমুখ এগোলে কে তা কোনোভাবে কি বাংলায় আসতে পারে? এদিক থেকে আবহাওয়াবিদরা বেশ একটা শান্তির কথা শুনিয়েছেন। তারা বলেছেন, যে বাংলার গায়ে এই ঘূর্ণিঝড়ের আঁচ কোন ভাবেই লাগবে না।

সপ্তাহের শেষে বঙ্গোপসাগর আরব সাগর মিলিয়ে জোড়া নিম্নচাপ সৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছেন ২২ তারিখ আরব সাগরে আর ২৩ তারিখ বঙ্গোপসাগরে এটা সৃষ্টি হতে পারে, কিন্তু শক্তি বাড়ানোর জন্য যে সমস্ত শর্তগুলো পূরণ করতে হবে সেই শর্ত অনেকটাই অনুকূল রয়েছে। তবে ঘূর্ণিঝড় হওয়ার জন্য সাধারণত জলস্তরে তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি কাছাকাছি হতে হয়।

এই মুহূর্তে বঙ্গোপসাগর জুড়ে তাপমাত্রা রয়েছে, তা কিন্তু প্রায় ৩১ ডিগ্রির কাছাকাছি সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে, নিম্নচাপ তৈরি হতে পারে। তবে সেই নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত নাও হতে পারে। আর যদি ঘূর্ণিঝড় হয়, সেক্ষেত্রে কিন্তু আমফান, আয়লা, ইয়াস বা ফনীর মতন অতটাও মারাত্মক হবে না।

Shreya Maitra Chatterjee
Shreya Maitra Chatterjee

আমি শ্রেয়া চ্যাটার্জী। বর্তমানে Hoophaap-এর লেখিকা। লাইফস্টাইল এবং বিনোদনমূলক লেখা আপনাদের কাছে ...