Hoop Life

Lifestyle: লেবু-লঙ্কা নয়, বাড়ির দরজায় পেঁয়াজ ঝোলালে কী উপকার হয় জানেন!

Advertisements

গৃহস্থালী এবং পরিবারের শুভ অশুভের কথা মাথায় রেখে বাস্তুশাস্ত্র (Vastu) মেনে চলেন অনেকেই। বাস্তুশাস্ত্র মতে, অনেক জিনিসের মধ্যেই নানান গুণ থাকে, যেগুলি সংসারের জন্য কখনো শুভ কখনো আবার অশুভ প্রভাব ডেকে আনে। বাড়ির মূল দরজার সামনে বা দোকান, কারখানার দরজার সামনে লেবু লঙ্কা ঝোলানোর প্রথা বহুকাল ধরে মেনে আসা হচ্ছে। মূলত কুনজর এড়ানোর জন্যই এমনটা করা হয়ে থাকে।

জানলে অবাক হবেন, বিভিন্ন দেশে এবং বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে এমন বহু প্রথা চলে আসছে বহুকাল ধরে। আপনজনের শুভ কামনা করেই এই সমস্ত রীতি মানা হয়। শুধু ভারতেই নয়, গ্রিস দেশেও রয়েছে এমন এক অদ্ভূত প্রথা, যা মেনে বছরের শেষ দিনে সেখানকার মানুষজন বাড়ির দরজায় ঝোলান পেঁয়াজ। গ্রিসের মানুষজন দের প্রচলিত বিশ্বাস অনুযায়ী, বছরের শেষ দিনে বাড়ির দরজায় পেঁয়াজ ঝোলালে জীবনে সৌভাগ্য ফিরে আসে।

Lifestyle: লেবু-লঙ্কা নয়, বাড়ির দরজায় পেঁয়াজ ঝোলালে কী উপকার হয় জানেন!

বিস্তারিত বলা যাক এ বিষয়ে। সাধারণত কলি বের হওয়া পেঁয়াজই গ্রিসের এই প্রথার মূল বিষয়বস্তু। সেখানকার মানুষরা বছরের শেষ দিনে এক গোছা পেঁয়াজ ঝুলিয়ে দেন বাড়ির দরজায়। নতুন বছরের প্রথম দিনও এই পেঁয়াজের গোছা ঝুলে থাকে বাড়ির দরজায়। এই পেঁয়াজ দিয়েই আবার বছরের প্রথম দিনে বাড়ির ছোটদের মাথায় টোকা দিয়ে ঘুম ভাঙান বড়রা।

কিন্তু এই প্রথার নেপথ্যে থাকা কারণটা কী? গ্রিসের মানুষদের বিশ্বাস, বছরের শেষ দিন দরজায় পেঁয়াজের গোছা ঝোলানোর পর তা যদি নতুন বছরের প্রথম দিনও দরজায় ঝোলানো থাকে তাহলে নতুন বছরে সৌভাগ্য ফেরে। দেশে উর্বরতা বৃদ্ধি পায় এই প্রথা মানা হলে। বহুকাল ধরে এই প্রথা মেনে আসা হয় গ্রিস দেশে।

Disclaimer: বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ এবং মতামতের ভিত্তিতে লেখা হয়েছে প্রতিবেদনটি। ব্যক্তিবিশেষে এর ফল হতে পারে ভিন্ন।

Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখার মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাঠকদের কাছে পৌঁছে দিতে চাই