Trending

Video

Shorts

whatsapp [#128] Created with Sketch.

Join

Follow

 
Advertisements

পান খাওয়ার নেশা! দাঁতের ব্যথা থেকে পেটের রোগে অব্যর্থ সমাধান এই পাতা

Nirajana Nag

Nirajana Nag

Follow
Advertisements

পান (Betel Leaves) খেতে পছন্দ করেন অনেকেই। খাওয়া দাওয়ার পর মুখ শুদ্ধি হিসেবে পানের প্রচলন বহুদিনের। আগেকার দিনে বাড়ির মহিলাদের মধ্যে পান সেজে খাওয়ার রেওয়াজ ছিল। মিষ্টি পান, জর্দা দেওয়া পান, এক একজনের পছন্দ হয় এক এক রকম। তবে জানলে অবাক হবেন, পান পাতার ব্যবহার শুধু মুখ শুদ্ধি হিসেবে নয়, আরো নানান গুণ রয়েছে এই পাতায়। পান পাতা প্রাচীন আয়ুর্বেদিক ভেষজ। এই পাতার গুণাবলী শুনলে অবাক হয়ে যাবেন।

পান পাতায় রয়েছে ট্যানিন, প্রোপেন, ফিনাইল, অ্যালক্যালয়েডের মতো পুষ্টি উপাদান। শরীরের অতিরিক্ত ইউরিক অ্যাসিড কমাতে পান পাতার জুড়ি মেলা ভার। পান চিবিয়ে খেলে ইউরিক অ্যাসিড কমে, সঙ্গে শরীরের নানান ব্যথাও কমে। হজম সংক্রান্ত যে কোনো সমস্যা দূর হয় পান পাতা চিবিয়ে খেলে। এই পাতা হজম শক্তি বৃদ্ধি করে। কোষ্ঠকাঠিন্য, অ্যাসিডিটির মতো পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় পান পাতার দৌলতে। এমনকি গ্যাসট্রিক আলসারের মতো রোগও সারিয়ে তোলে পান পাতা।

সব খবর মোবাইলে পেতে 👉🏻

Join Now
পান খাওয়ার নেশা! দাঁতের ব্যথা থেকে পেটের রোগে অব্যর্থ সমাধান এই পাতা

শরীরে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পান পাতা উপকারী। শরীরে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধিতে বাধা দেয় এই পাতা। পান পাতায় থাকা উপাদানগুলি শরীরে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। পান পাতা চিবিয়ে খাওয়ার অনেক উপকারিতা রয়েছে। চিকিৎসকদের মতে, এই পাতা চিবিয়ে খেলে দাঁতের ব্যথা সহ বিভিন্ন সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। মাড়ি ফোলার সমস্যা থেকেও মুক্তি দেয় পান পাতা। তবে এক্ষেত্রে শুধু পান পাতা চিবিয়ে খেতে হবে। সঙ্গে সুপারি, চুন বা তামাকের মতো উপাদান থাকা চলবে না।

পান পাতার গুণাবলী বলে শেষ করা যাবে না। এই পাতার মধ্যে থাকা পুষ্টিগুণ শরীরের বিভিন্ন সমস্যায় উপকার দেয়। ঠাণ্ডা লাগার সমস্যায় যারা ভোগেন, তারা পান পাতা চিবিয়ে খেতে পারেন। ঠাণ্ডা লাগা, অ্যালার্জি এবং মাথা ব্যথার মতো সমস্যা থেকে মুক্তি দেয় পান পাতা।

Disclaimer: বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ এবং মতামতের ভিত্তিতে লেখা হয়েছে প্রতিবেদনটি। ব্যক্তিবিশেষে এর ফল হতে পারে ভিন্ন।

Nirajana Nag
Nirajana Nag

আমি নীরাজনা নাগ। HoopHaap-এর একজন সাংবাদিক। বিগত চার বছর ধরে এই পেশার সঙ্গে যুক্ত রয়েছি। নিজের লেখা...